ভোলায় সেঞ্চুরির মাইলফলক পেরিয়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা;নতুন ২৫জন সহ মোট আক্রান্ত ১৪১জন।

প্রকাশিত: ২:০৪ অপরাহ্ণ, জুন ১৪, ২০২০, 639 জন দেখেছেন

ভোলা প্রতিনিধি::বিশ্বে এক মহা আতঙ্ক এখন করোনা ভাইরাস।চীন থেকে ছড়িয়ে পরা এই ভাইরাস ইতিমধ্যে আক্রান্তের দিক দিয়ে চীনকে টপকে সামনে এগিয়ে বাংলাদেশ।

দক্ষিণাঞ্চলের জেলা ভোলায় ইতোমধ্যে সর্বশেষ ২৫ জন সহ মোট আক্রান্ত দাড়িয়েছে ১৪১ জনে।আজকে এই তথ্য নিশ্চিত করেন ভোলা সিভিল সার্জন রতন কুমার ঢালী।

এর আগের দিন গত শনিবার (১৩জুন) গত ৩ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ রের্কড সংখ্যক করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়েছে।শনিবার রাতে নতুন আরো ২৬ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।
এদের মধ্যে ভোলা সদরে একজন স্বাস্থ্যকর্মী, একজন পরানগঞ্জ ও একজন চরসামাইয়া ইউনিয়নের চর সিফলির এক নারী রয়েছে।
এছাড়া বোরহানউদ্দিন উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক চিকিৎসক, একজন নারী স্বাস্থ্যকর্মী, উত্তর বাস স্ট্যান্ড এলাকার দুই নারী এনজিও কর্মী ও ৩ জন -পৌর ৩ নং, ৪ নং এবং ৭ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা।অপরদিকে দৌলতখান উপজেলায় এক পুলিশ কর্মকর্তা ও নারীসহ ৩ জন- পৌর ৪ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা।
লালমোহন উপজেলায় এক নারী পুলিশ কর্মকর্তা, ৪ কোস্টগার্ড সদস্য এবং একজন -পৌর ৪ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা ও রয়েছে। এছাড়া চরফ্যাশন উপজেলায় এক চিকিৎসক, এক পুলিশ কর্মকর্তা, তিন জন- পৌর ১ নং ও ৯নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা এবং একজন উপজেলা নির্বাচন কার্যালয়ে কর্মরত আছেন।

এদিকে করোনা প্রাদুর্ভাব দেখা দিলে ভোলায় প্রায় ৩ মাসে ২৬৩২ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১১৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে এবং পরবর্তীতে আজকে নতুন ২৫ জন সহ মোট আক্রান্ত ১৪১।
সিভিল সার্জন অফিস সূত্র জানায়,গত ১৫ মার্চ থেকে ১২ জুন পর্যন্ত ২৬৩২ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য সংগ্রহ করে ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে ২২১৭ জনের রিপোর্ট পাওয়া যায়। তার মধ্যে নেগেটিভ এসেছে ২০৫১ জনের। পজেটিভ আসে ১১৬ জনের।আর মৃত্যু হয়েছে ২ জনের। আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৩৪ জন। এদিকে রির্পোট আসেনি ৪১৫ জনের।

তবে ভোলায় পিসিআর ল্যাব স্থাপনের কাজ শেষ হলেও উদ্বোধনের আশায় এখনো কাজ শুরু করা হয়নি।যদি ল্যাব চালু করা হয় তবে নমুনা পরীক্ষার জন্য ভোগান্তি পোহাতে হবেনা ভোলাবাসীর।আর দ্রুত তথ্য প্রদানে সক্ষম হলে ভাইরাস আক্রান্তের হাত থেকে হয়ত সচেতন হতে পারবে।