মতিন সৈকতের টিউবওয়েলে দোয়েলের পাচঁটি ছানা

প্রকাশিত: ৬:১৭ পূর্বাহ্ণ, জুন ১৩, ২০২০, 468 জন দেখেছেন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ-কুমিল্লা দাউদকান্দি উপজেলার আদমপুর গ্রামের রাষ্ট্রীয় পুরস্কার প্রাপ্ত কৃষি, পরিবেশ, সমাজ উন্নয়ন সংগঠক অধ্যাপক মতিন সৈকতের বাড়ির টিউবওয়েলে জাতীয় পাখি দোয়েল বাসা তৈরি করে পাঁচটি ছানা বড় করে নিরাপদে উড়িয়ে নিচ্ছে। ১২ জুন শুক্রবার সরেজমিনে পরিদর্শনে গিয়ে দেখা যায়। বাড়ির টিউবওয়েল এবং ট্যাপ পাশাপাশি সংযুক্ত। আগে থেকেই টিউবওয়েল থেকে মটরের সাহায্যে পানি নিয়ে ট্যাপের মাধ্যমে পারিবারিক প্রয়োজনীয় গৃহস্থালি কাজকর্ম করছেন। মতিন সৈকত জানান টিউবওয়েল এবং ট্যাপের দুরত্ব এক মিটারের ও কম। ট্যাপটি প্রতিনিয়ত আমরা ব্যবহার করি। পাখি কি করে এতটা নিশ্চিত হলো তার নিরাপত্তার বিষয়ে এটি ভাবতেই অবাক লাগে। সাধারণত দোয়েল লোকচক্ষুর অন্তরালে গাছের কোটরে বাসা তৈরি করে ডিম পেড়ে ছানা ফুটায়। আমি ২০০০সাল থেকে পাখি উদ্ধার এবং অবমুক্ত করে আসছি। এ পর্যন্ত আমি ১৫০০’র কাছাকাছি পাখি উদ্ধার এবং অবমুক্ত করেছি। পরিবেশ সংরক্ষণ এবং দূষণ নিয়ন্ত্রণ, জীব-বৈচিত্র সংরক্ষণ, খাল-নদী পূনঃখনন, প্লাবনভূমিতে মৎস্য চাষ সম্প্রসারণ, দুই হাজার টাকার সেচ মাত্র দুইশ টাকার বিনিময়ে বোরোধান ত্রিশ বছর সেচ সুবিধা দিয়ে আসছি। পাখির অভয় আশ্রম তৈরিতে কাজ করছি।
পরিবেশ কর্মী ফায়সাল সাকির বলেন আমাদের টিউবওয়েলে জাতীয় পাখি দোয়েল বাসা বানানো থেকে ডিম পেড়ে ছানা বড় করে উড়িয়ে নেয়া পর্যন্ত প্রায় দুই মাস লেগেছে।
এ সময়ে পাখির যাতে কোনো অসুবিধা না হয় আমরা তদারকি করেছি। ইতিমধ্যে তিনটি ছানা উড়ে গেছে।