চান্দিনার বরকরই খড় বিক্রি করাকে কেন্দ্র করে পিতার লাঠির আঘাতে পুত্রের মৃত্যুর অভিযোগ

প্রকাশিত: ৬:৩৩ অপরাহ্ণ, জুন ৯, ২০২০, 528 জন দেখেছেন

আলিফ মাহমুদ কায়সার কুমিল্লা প্রতিনিধি:-

চান্দিনার বরকরই পশ্চিমপাড়া হাজী বাড়িতে পিতা ও পুত্রের মধ্যে ধানের শুকনো খড় বিক্রি করাকে কেন্দ্র করে লাঠির আঘাতে মোশারফ( ২৫)নামে একজন নিহতের অভিযোগ উঠেছে। ৯ জুন মঙ্গলবার সকালে উক্ত ঘটনাটি ঘটে।নিহত মোশারফ বরকরই পশ্চিমপাড়া( পুতার বাড়ীর) দেলোয়ার হোসেনের কৃষক পুত্র ছিলেন।
পুলিশ সূত্রে জানা যায় গত ৭ জুন রবিবার মৃত মোশারফ হোসেনের বাবা দেলোয়ার হোসেন মাতা শাহিনা বেগম ও তার ছোট ভাই মহসিন সহ তাদের নিজ বাড়িতে ধানের শুকনো খড় বিক্রি করা নিয়ে কথাকাটাকাটি হয়।এক পর্যায়ে তার বাবা ও ভাই মহসিন ক্ষিপ্ত হয়ে লাঠি দিয়ে মোশারফের মাথায় আ্রঘাত করে গুরুতর জখম করে। আহতবস্থায় ঐ দিন রাত ৮টায় চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ত তাকে ভর্তি করানো হয়।পরবর্তীতে গত ৮ জুন সোমবার বিকেলে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুমিল্লা মেডিকেল হাসপাতালে নেওয়ার সময় পথিমধ্যে তার মৃত্যু হয়।৯ জুন ঘটনাটি শুনে লাশ ময়না তদন্তের জন্য থানার মর্গে নিয়ে যাওয়া হয়।
এদিকে পাঁচ মাসের অন্তঃস্বত্তা নিহতের স্ত্রী হালিমা আক্তার কবিতা জানান খড় বিক্রি করা নিয়ে আমার স্বামীকে জখম অবস্থায় দোল্লাই নবাবপুর হাসপাতালে নিয়ে গেলে পুলিশ কেইস বলে চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানোর কথা বলে।সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুমিল্লা হাসপাতালে নিতে বলে। তিনি আরোও জানান সেখান থেকে শশুর বাড়িতে নিয়ে টাকা জোগার করতে আমার বাবার বাড়ি কচুয়াতে যাই।চিকিৎসার টাকা মিল করতে রাত্রে বাবার বাড়িতে কাটাই।পরদিন ৯ জুন মঙ্গলবার সকালে শশুড়বাড়ী থেকে ফোনে আমার স্বামীর মৃত্যুর সংবাদ দেয়।
স্থানীয় চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম মজুমদার শিপন ঘটনা পরিদর্শন করে বলেন -ঘটনাটি শুনে পুলিশকে অবগত করলে পুলিশ এসে লাশ ময়না তদন্তের জন্য থানায় নিয়ে যায়।সেখানে পুলিশ তদন্ত করে এর সুষ্ঠু ব্যবস্থা করবে।
এ ব্যাপারে চান্দিনা থানার তদন্ত কর্মকর্তা ওসি আবুল ফয়সাল জানান – সুষ্ঠু তদন্ত চলছে এবং মামলা প্রক্রিয়াধীন অবস্থায় আছে।