রাজশাহীতে প্রথম পুলিশ কনস্টেবল করোনা আক্রান্ত

প্রকাশিত: ৫:৪৪ অপরাহ্ণ, মে ৪, ২০২০, 809 জন দেখেছেন

রাজশাহী (জেলা) প্রতিনিধি : রাজশাহীতে এক কনস্টেবলসহ দুইজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্ত অপরজন পরিচ্ছন্নতা কর্মী। তারা দুইজনই তানোর থানায় কর্মরত।

সোমবার রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) ল্যাবে তাদের নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ আসে। রাজশাহীতে এই প্রথম কোনো পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হলেন। জেলায় এখন করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ১৭ জনে দাঁড়ালো।

আক্রান্তরা হলেন, তানোর থানার পুলিশ কনস্টেবল আলী হোসেন (৪২) ও থানার পরীছন্নকর্মী আব্দুল মালেক। কনস্টেবল আলী হোসেন থানার ওয়ালেস রেডিও বিভাগে কর্মরত। তিনি তানোরে আক্রান্ত এক রোগির বাড়িতে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে তিনি সংক্রমিত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে পরীছন্নকর্মীর আক্রান্ত হওয়ার উৎস পাওয়া যায়নি।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের প্রধান ডা. বুলবুল হাসান, এ দিন ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে পাঁচজনের পজেটিভি আসেছে। এদের মধ্যে পাবনার দুইজন, নাটোরের একজন ও রাজশাহীর দুইজন। এ দিন ল্যাবে আরও ২১৯ জনের নমুনা এসেছে পরীক্ষা জন্য বলে জানান তিনি।

তানোর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রোজীয়ারা খাতুন বলেন, ‘গত ২ এপ্রিল তানোর থানায় গিয়ে আমরা এ দুইজনের নমুনা সংগ্রহ করি। তাদের নমুনা পরীক্ষার জন্য রামেকের ল্যাবে পাঠানো হয়।

সোমবার সন্ধ্যায় জেলার সিভিল সার্জন ডা. এনামুল হক ওই দুই জনের করোনা পজিটিভ আসার তথ্য জানিয়েছেন। এ নিয়ে তানোরে তিনজন করোনা আক্রান্ত রোগি শনাক্ত হয়েছে।’

তানোর থানার ওসি রাকিবুল হাসান বলেন, ‘তারা দুইজনই থানার স্টাফ। একজন কনস্টেবল, অন্যজন পরিচ্ছন্নতাকর্মী। তাদের করোনা পজিটিভ এসেছে বলে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা আমাকে ফোনে জানিয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।’

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) ও জেলা পুলিশের মুখ্যপাত্র ইফতে খায়ের আলম বলেন, রাজশাহীতে এই প্রথম পুলিশ ও তাদের স্টাফ আক্রান্ত হয়েছে। তারা দুইজনই তানোর থানায় কর্মরত। তাদের রাজশাহী পুলিশ লাইন্স হাসপাতালে আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা দেয়া হবে।

এছাড়াও ওই থানার সবার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করার ব্যবস্থা করা হবে বলেও জানান তিনি।

রাজশাহীতে গত ১২ এপ্রিল প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। সোমবার পর্যন্ত এ জেলায় করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির সংখ্যা ১৭ জনে দাঁড়িয়েছে। এর মধ্যে পুঠিয়ায় ৫ জন, মোহনপুরে ৪ জন, দুর্গাপুরে ২ জন, পবায় ১ জন, বাঘায় ১ জন, বাগমারায় ১ জন ও তানোরে ত জন। এর মধ্যে তিনজন সুস্থ্য হয়েছেন। আর মারা গেছেন একজন।