১০ ফুট লম্বা কবরে চিরনিদ্রায় শায়িত জিন্নাত আলী

প্রকাশিত: ১:২১ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৮, ২০২০, 825 জন দেখেছেন

লাল সবুজ ৭১ ডেস্ক :: কক্সবাজারের রামুতে ১০ ফুট লম্বা এবং ৪ ফুট প্রস্থের কবরে শায়িত হলেন দেশের দীর্ঘ মানব জিন্নাত আলী। আজ বিকেল ৩টায় রামু উপজেলার থোয়াইংগাকাটা বড় কবরস্থানে তার নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজা শেষে ওই কবরস্থানেই দাফন করা হয় তাকে।
মঙ্গলবার ভোররাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান তিনি। 

রোববার জিন্নাত আলীকে চমেক হাসপাতালে আনা হয়। প্রথমে তাকে হাসপাতালের নিউরোলজি বিভাগে ভর্তি করা হয়। সেখানে পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে তাকে সোমবার নিউরোসার্জারি বিভাগে স্থানান্তর করা হয়। তার অবস্থা সংকটাপন্ন বলে জানিয়েছিল চিকিৎসকরা।

কক্সবাজারের রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের বড়বিল গ্রামের আমির হামজার ছেলে ৮ ফুট ৬ ইঞ্চি লম্বা জিন্নাত আলী বর্তমানে বাংলাদেশের সবচেয়ে লম্বা মানুষ।

২০১৮ সালের অক্টোবরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেন জিন্নাত আলী। এরপর তাকে নিয়ে হইচই পড়ে যায়। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তাকে দোকান ঘর নির্মাণ করে দেন কক্সবাজার জেলা প্রশাসক।
জিনাত আলী ঘরে বের হলে তাকে দেখতে উৎসুক মানুষের ভীড় পড়ে যেত। মানুষ তাকে খাবার ও অর্থ সহায়তা করতো। অস্বাভাবিক লম্বা হওয়ায় আল্লাহর আশ্চর্যজনক সৃষ্টি হিসেবে মানুষকে দেখানোর জন্য বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানেও তাকে নিয়ে আশা হতো। আবার সংসারে অভাব দেখা দিলে সে নিজ থেকে হাটবাজার, স্টেশনে বেরিয়ে পড়তো। মানুষ তাক দেখলেই অর্থকড়ি দিয়ে সাহায্য করতো। এ ভাবেই কেটে যাচ্ছিল জিনাত আলীর দিনকাল।
১৯৯৬ সালের জিন্নাত আলী জন্মগ্রহণ করেন। তিনি পরিবারের দ্বিতীয় সন্তান। ১১ বছর বয়স থেকে জিন্নাত আলীর শরীরের অস্বাভাবিক উচ্চতা বৃদ্ধি শুরু হয়। সেটি একসময় বেড়ে ৮ ফুট ৬ ইঞ্চিতে গিয়ে দাঁড়ায়।

২০১৮ সালের অক্টোবরে জিন্নাত আলীকে চিকিৎসার জন্য রাজধানী ঢাকায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়। তখন চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন, জিন্নাতের মস্তিষ্কে টিউমার রয়েছে। এ ছাড়া হরমোন সমস্যার কারণে তার উচ্চতা বৃদ্ধি পাচ্ছে।
জিনাত আলী অস্বাভাবিক উচ্চতার কারণে বিভিন্ন কাজ করতে সমস্যা হতো। তার পায়ের মাপের জুতা বাজারে পাওয়া যেতো না বলে খালি পায়ে হাটতে হতো।

তিনি শারীরিক দুর্বলতা ও দুই হাঁটুতে ব্যথা নিয়ে নিয়ে প্রায় সময় ডাক্তারের শরানপন্ন হতেন। পেটে সবসময় ক্ষুধা থাকলেও দারিদ্রের কারণে খাওয়া দাওয়া ঠিকমতো করতে পারতেন না।
৮ ফুট ৬ ইঞ্চি উচ্চতার এই ব্যক্তি বিশ্বের ২য় দীর্ঘকায় মানব বলে ধারনা করা হচ্ছে।