রাজশাহীতে সরকারি চালসহ আ.লীগ নেতা গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: ৮:১৩ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ১৯, ২০২০, 656 জন দেখেছেন

সুজন রাজশাহী প্রতিনিধি

রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলায় দুস্থ্যদের জন্য সরকারের বরাদ্দ করা ১০ টাকা কেজির চালসহ এক আওয়ামী লীগ নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

শনিবার বিকেলে উপজেলার গোয়ালপাড়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তারের পর তার বাড়ি থেকে ৬৭ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়। তিনি খোলা বাজারে চাল বিক্রির (ওএমএস) ডিলার। গ্রেপ্তার আওয়ামী লীগ নেতার নাম আলাল উদ্দিন স্বপন। তিনি গোদাগাড়ীর পাকড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাজমুল ইসলাম সরকার এ অভিযান চালায়। এ সময় তার সঙ্গে গোদাগাড়ী থানার ওসি খায়রুল ইসলাম ও কাঁকনহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক শিশির কুমার কর্মকারও ছিলেন। ইউএনও নাজমুল ইসলাম সরকার জানান, করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে সম্প্রতি দুস্থ্যদের জন্য ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি শুরু হলে ওএমএসের ডিলার আলাল উদ্দিন স্বপন ১৫ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ পান। রেজিস্ট্রারে তিনি দেখিয়েছেন মাথাপিঁছু পাঁচ কেজি করে ৪৯২ জনকে ১০ টাকা দরে চাল দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, স্বপনের রিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া যায় তিনি প্রায় ২০০ ব্যক্তির কাছ থেকে ওএমএসের কার্ড কেড়ে নিয়েছেন। আবার রেজিস্ট্রারে জাল স্বাক্ষর করা হয়েছে বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এছাড়া রেজিস্ট্রারে অনেকের স্বাক্ষরই নেই। এসব অভিযোগের প্রেক্ষিতে তার বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় একটি ঘরে ৬৭ বস্তা চাল পাওয়া যায়। প্রতিটি বস্তায় পাওয়া গেছে ৫০ কেজি চাল। সরকারি বস্তা থেকে বের করে চালগুলো সাধারণ বস্তায় ভরে রাখা হয়েছিল। বাড়িতে এতো চাল পাওয়ার পর আওয়ামী লীগ নেতা স্বপনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ইউএনও জানান, চালগুলো গুদামে থাকার কথা। গুদামের সামনে থাকার কথা সাইনবোর্ড। কিন্তু কিছুই নেই। চাল ছিলো বাড়িতে।

তার বাড়িতে প্রায় শতাধিক ব্যক্তির কার্ডও পাওয়া গেছে, যেগুলো বিতরণের কথা ছিলো। আলাল উদ্দিন স্বপনের বিরুদ্ধে গোদাগাড়ী মডেল থানায় একটি নিয়মিত মামলা করা হবে। উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা মামলার বাদী হবেন বলে জানান তিনি।