রাজশাহীতে বাড়ছে করোনা রোগী, কমছে না জনসমাগম, হিমশিম খাচ্ছে প্রশাসন

প্রকাশিত: ৫:৪৪ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৫, ২০২০, 624 জন দেখেছেন

রাজশাহী (জেলা) প্রতিনিধি: মহামারী প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস থেকে রাজশাহী ছিলো অনেকটায় মুক্ত এবং স্বাভাবিক। দেশের বিভিন্ন জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সন্ধান পাওয়া গেলেও রাজশাহীর অবস্থান ছিলো অনেক অংশেই ভালো। অবশেষে করোনার ছোবল এসে পড়লো রাজশাহীর উপরেও।

পরপর তিনবারে রাজশাহীতে তিনজন করোনা আক্রান্ত রোগী ধরা পড়লো। তবে যে তিনজন করোনা আক্রান্ত হয়েছে তারা সবাই ঢাকা ও নারায়নগঞ্জ-ফেরত, এ নিয়ে চরম আতঙ্ক এখন জেলার সাধারণ মানুষের মাঝে। বিশেষ করে যারা অপ্রয়োজনে ঘরের বাইরে ঘুরাফিরা করছিলেন, তারা এখন আতঙ্কে অনেকেই ঘরে ঢুকেছেন।
তার পরেও এখনো রাজশাহী মহানগরীসহ বিভিন্ন উপজেলা গুলোতে রাস্তায় দেখা মিলছে সাধারণ মানুষের ভিড়। বিশেষ করে গ্রামের মোড়ে মোড়ে সন্ধ্যার পরে এখনো জটলা পাকিয়ে আড্ডা হচ্ছে বলে একাধিক মাধ্যম থেকে জানা যাচ্ছে।

জটলা ছুটাতে এখনো অভিযান চালাতে হচ্ছে জেলা প্রশাসনকে। এমনকি জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারসহ উর্ধতন কর্মকর্তারা নিজেরাও ছুটে যাচ্ছেন মানুষকে সচেতন করতে। প্রতিদিন জেল-জরিমানাও করা হচ্ছে রাস্তায় ঘুরা-ফেরা করার জন্য, তবুও সচেতন হচ্ছেন না অনেকেই।

জেলার তানোর উপজেলার বেশ কয়েকজ সচেতন মানুষের সাথে কথা হলে তারা জানান, সন্ধ্যায় এখনো কিছু যুবক ও কিশোর ঘুরা-ফেরা করছেন। সাধারণ মানুষের মাঝে যদিও ব্যাপক আতঙ্ক নেমে এসেছে। কিন্তু বন্ধ করা যাচ্ছে না অপ্রয়োজনে বাড়ি থেকে বের হওয়া। এখনোই দ্রুত ব্যবস্থা নিতে হবে এদের বিরুদ্ধে। সরজমিনে গিয়েও দেখা যায় থানা মোড়ের সোনালী ব্যাংকের নিছে মানুষসহ মটর বাইকের জটলা।

এ বিষয়ে রাজশাহী জেলা প্রশাসক হামিদুল হকের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, অপ্রয়োজনে যারাই ঘর থেকে বের হবে তাদের বিরুদ্ধেই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
করোনা নিয়ন্ত্রণে এরই মধ্যে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া শুরু হয়েছে। তবে এর জন্য সকলকে সচেতন হতে হবে। তা ছাড়া করোনা যে কোনো সময় বড় ধরনের বিপদ ডেকে নিয়ে আসবে রাজশাহী বাসীর জন্যে।

এ বিষয়ে তানোর থানার ওসি রাকিবুল হাসান বলেন এরই মধ্যে তিনজন আক্রান্ত হওয়ায় আমরা খুবই চিন্তত হয়ে পড়েছি।