শুন শান নিরবতায় নওগাঁর জনপদ 

প্রকাশিত: ৩:৩২ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ১১, ২০২০, 858 জন দেখেছেন

নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ

সারা বিশ্বের মতো আমাদের বাংলাদেশে ও করোনার প্রাদুর্ভাব মহামারী আকার দেখা দিতে শুরু করেছে। প্রাদুর্ভাবের গভীরতা অনুযায়ী একেক এলাকা একেক সময় লক ডাউনের আওতায় আসছে। ঘোষনা করেছে নানা নির্দেশনা। ক্রমশ পাল্টে দিচ্ছে চারিদিকে চিত্র।

করোনার এই মহামারী অবস্থার প্রভাব  নওগাঁর প্রতিটি উপজেলায়  ব্যাপকভাবে বিরাজ করছে । নওগাঁ সদর এলাকাসহ উপজেলার প্রতিটি রাস্তাঘাট হাট বাজার এখন প্রায় জনশূন্য. শুনশান নিরবতায় নওগাঁর জনপদ । মাঝে মধ্যে দুই একজন ক্রেতা ও কিছু ভ্যান, রিক্সা ও বাইকের দেখা মিললেও নেই গণজমায়েত। জনবহুল এলাকাগুলোতেও নেই মানুষের সমাগম।

জেলার প্রতিটি উপজেলায় এখন শুনশান নিরবতা। সবাই অজানা অচেনা প্রতিপক্ষ করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত। কেউ প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছেন না। আর বের হলেও মুখে মাস্ক লাগিয়ে বের হচ্ছেন। বন্ধ রয়েছে অপ্রয়োজনীয় সব দোকানপাট। তবে খাদ্যদ্রব্য ও নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের কথা বিবেচনা করে প্রশাসনের নির্দেশে  খোলা রয়েছে মুদি দোকান, কাচা বাজার ও ওষুধের দোকান বন্ধ হচ্ছে সময় অনুযায়ী। কিছু কিছু বাজার ঘাটে নিরাপদ দুরুত্ব না মানলে ও বেশির ভাগ যায়গায় নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে সতর্কতা অবলম্বন করেই চলছে ক্রয় বিক্রয়।

জেলার১১টি উপজেলা থেকে এ পর্যন্ত ৩ দফায় করোনা ভাইরাসের উপসর্গে অসুস্থ ৮২ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পাঠানো হয়েছে এর মধ্যে ৪৪জনের নমুনায় মেলেনি করোনার অস্তিত্ব

সরকারি নির্দেশে জেলা সিভিল সার্জন  এবং পুলিশ প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপের কারণে এমন পরিস্থিতি বিরাজ করছে। জেলা জুড়ে নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা   । সতর্কতামূলক ব্যবস্থার অংশ হিসেবে স্থানীয় প্রশাসনকে সহায়তা করতে সেনাবাহিনীর সদস্যরা রাস্তায় নেমেছে।
করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবেলায় সবসময় মাঠে কাজ করেতে দেখা গেছে গ্রাম পুলিশ ও  আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ।

সবাইকে করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য সচেতনতামূলক প্রচারণা অব্যাহত আছে।