বোরহানউদ্দিনে জ্বীনের বাদশা রাসেলের প্রতারণা, অবৈধ ভাবে গড়ে তুলেছে সম্পদের পাহাড়

প্রকাশিত: ১১:৫৩ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ৭, ২০২০, 716 জন দেখেছেন

ভোলা প্রতিনিধি:: নাম রাছেল,পেশায় তেমন কিছু না হলেও জ্বীন চালের নামে মানুষকে ধোকা দিয়ে অবৈধভাবে গড়ে তুলেছে সম্পদের পাহাড়।জ্বীনের বাদশা রাছেল ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার কাচিয়া-টবগী ইউনিয়নের কুঞ্জেরহাটের মুলাইপত্তন গ্রামের অধিবাসী।তার পিতার নাম:রফিজল জাফর, মাতার নাম:ইয়ানুর বেগম।

উক্ত জ্বীনের বাদশা রাছেল জ্বীন চালের নামে প্রতারণা করে অবৈধভাবে টাকার পাহার গড়ে তুলেছে। আর তার এই ভূয়া জ্বীন চাল দিয়ে মানুষকে ধোকা দিয়ে রমরমা ব্যবসা চালয়ে যাচ্ছে।

তবে এখানেই শেষ নয়। স্থানীয় কয়েকজন জানান, জ্বীনের ধোকার পাশাপাশি ইমো, ইয়াবার ব্যাবসা সহ নানা রকম অবৈধ কর্মকান্ডে জরিত রয়েছে। এছাড়া টাকার গরমে আশেপাশে বাড়ির মানুষের সাথে জোর-জুলুম চালাচ্ছে। সবার সাথে খারাপ ভাষায় কথা বলছে।

এছাড়াও আশেপাশের প্রতিবেশীদের সাথে অসদাচরণের পাশাপাশি গাছ কর্তনসহ ঘরবাড়ি ভাংচুরের অভিযোগ রয়েছে। নেশাগ্রস্ত হয়ে প্রতিবেশীর উপর অত্যাচার করারও অভিযোগ উঠেছে।

সন্ধ্যা হলেই ও বাসায় দরজা – জানালা বন্ধ করে ও জ্বীনের আসর শুরু করে। তার নামে বোরহারউদ্দিন থানায় মামলাও রয়েছে । তাকে এর আগেও পুলিশ বাসায় কয়েক বার হানা দিয়ে গ্রেফতার করার চেষ্টা চালান। কিন্তু তার দল অনেক ভারি হওয়ায় পুলিশ আসার খবর পেয়ে পালিয়ে যায়।

এই রাছেল ইয়াবা ও চালান করে এভাবে অবৈধ ভাবে রাতারাতি টিনসেড ঘর থেকে বর্তমানে বিল্ডিং, বাড়ির পাশে প্রায় ৪০ শতাংশ জমি, গরু, ও কবুতরের জাঁকজমক ব্যবসা রয়েছে। এছাড়া তার ব্যাংক একাউন্টে রয়েছে কয়েক লক্ষ অবৈধ টাকা বলে জানিয়েছেন স্থানীয় জনতা।

এখন রাসেল ওরফে জ্বীনের বাদশা এলাকায় যে তান্ডব ও অত্যাচার শুরু করেছে তার থেকে পরিত্রান চাচ্ছেন প্রতিবেশী ও এলাকাবাসী। শীর্ষ মাদক কারবারি সাথে যুক্ত রাসেলের তান্ডব নিধনে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন এলাকাবাসী।