গোলাপগঞ্জে প্রেমিকার সাথে গোপনে দেখা করতে গিয়ে ছাত্রলীগের হামলার শিকার যুবক

প্রকাশিত: ১১:৩৭ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১৬, ২০১৭, 22 জন দেখেছেন

স্টাফ রিপোর্টার : সিলেটের গোলাপগঞ্জে প্রেমিকার সাথে গোপনে দেখা করতে গিয়ে ছাত্রলীগের ৪-৫ জন নেতাকর্মীর হামলায় নুরুল ইসলাম মাসুদ নামে এক যুবক মারাত্মক আহত হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গতকাল শনিবার (১৫ জুলাই) রাত ১১ টার দিকে উপজেলার লক্ষীপাশা ইউনিয়নের মোল্লাগ্রামে এঘটনা ঘটে।

হামলায় আহত যুবকের বাড়ি উপজেলার বাঘা ইউনিয়নের বাঘা দৌলতপুর গ্রামে। সে ওই গ্রামের হাজী আব্দুল কাদিরের ছেলে।

হামলার শিকার যুবক জানান, প্রায় ৩ বছর যাবত থেকে উপজেলার লক্ষীপাশা ইউনিয়নের মোল্লাগ্রামের তাসমিয়া খানম জান্নাতের সাথে আমার প্রেমের সম্পর্কে চলে আসছে। প্রেমিকার কথা মত শনিবার রাত ১১টার দিকে আমি তার সাথে দেখা করতে গোপনে তার বাড়িতে যাই। দেখা করার এক পর্যায়ে আমার প্রেমিকার চাচাতো ভাই তামিম আহমদের কয়েকজন বন্ধু আমাদের এক সাথে দেখে ফেলে। এসময় তারা আমাকে ধরে কিল-ঘুষি ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে। এমনকি তারা আমাকে প্রাণে মেরে ফেলারও চেষ্টা করে। তবে আমার চিৎকার শুনে স্থানীয় কয়েকজন দৌড়ে এসে তাদের হাত থেকে আমাকে উদ্ধার করে গোলাপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

নুরুল ইসলাম মাসুদ আরও বলেন, তারা আমাকে যে কোনদিন প্রাণে হত্যা করতে পারে। হামলার সময় তারা ৪-৫জন ছিলেন। তারা সবাই ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত। এঘটনায় গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম ফজলুল হক শিবলীর কাছে গিয়ে অভিযোগ দিতে চাইলে সন্ত্রাসীরা ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত শুনে তিনি অভিযোগ গ্রহণ করেননি। যে কারণে আমি আমার জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

এ বিষয়ে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম ফজলুল হক শিবলী বলেন, একটি ছেলে এসেছিলো। তার মুখ থেকে ঘটনা শুনেছি। তবে সে কোন অভিযোগ দেয়নি।