গোলাপগঞ্জে মামলা তুলে নিতে বাদিকে হত্যার হুমকি, এখনো গ্রেপ্তার হয়নি আসামি

প্রকাশিত: ৫:১০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৫, ২০২২, 866 জন দেখেছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট : সিলেটের গোলাপগঞ্জে আব্দুর রাজ্জাক রেজা (৫৩) নামে এক আসামির বিরুদ্ধে মামলা করে বিপাকে পড়েছেন তাহির আলী নামে এক ভুক্তভোগী।

মামলার বাদি তাহির আলী (৩০) উপজেলার পশ্চিম আমুড়া ইউনিয়নের আমনিয়া পশ্চিমপাড়া গ্রামের আজ্জাদ আলীর ছেলে।

মামলার আসামি আব্দুর রাজ্জাক রেজা (৫৩) উপজেলার ফুলবাড়ি ইউনিয়নের ফুলবাড়ি উত্তরপাড়া গ্রামের ছমেদ আলীর ছেলে। তিনি ফুলবাড়ি ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য।

মামলা সূত্রে জানা যায়, আসামি আব্দুর রাজ্জাক রেজা মামলার বাদি তাহির আলীর কাছে থেকে ঋণ নিয়ে ছিলেন। ঋণের প্রায় ১৫ লক্ষ টাকা আসামির কাছে এখনো পাওনা রয়েছে। ওই টাকা পরিশোধের জন্য গত ২০২১ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি অগ্রণী ব্যাংক হেতিমগঞ্জ শাখায় আসামির নামীয় ১৫ লক্ষ টাকার একটি চেক তাহির আলীকে প্রদান করেন। পরের দিন ১৮ ফেব্রুয়ারি তাহির আলী ডাচ বাংলা ব্যাংক গোলাপগঞ্জ শাখায় চেকটি যাচাই করলে দেখা যায় আসামির একাউন্টে কোন টাকা নাই। পরবর্তীতে ২০২১ সালের ৭ মার্চ রেজিস্ট্রিকৃত ডাকযোগে আসামি আব্দুর রাজ্জাক রেজার কাছে লিগ্যাল নোটিশ প্রদান করলে মামলার বাদিকে তিনি সময় মত টাকা পরিশোধ করতে পারেননি। আসামির দেওয়া চেকটি ডিজঅনার হওয়ায় তাহির আলী বাদি হয়ে গত ২০২১ সালের ২৯ এপ্রিল সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত সিলেট এ আসামি আব্দুর রাজ্জাক রেজার বিরুদ্ধে  মামলা দায়ের করেন।

আসামির বিরুদ্ধে দুটি মামলা রয়েছে। (সি আর মামলা নং- ১৬৬/২১ মোকদ্দমা ২৬১/২২ সাজাপ্রাপ্ত আসামি ও সি আর মামলা নং- ২২২/২১ মোকদ্দমা ১৪/২২ কোর্টে চলমান আছে।

মামলার বাদি তাহির আলী বলেন- আসামিকে এখনো গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। গ্রেপ্তার না হওয়ায় আসামি লোকমারফতে মামলা তুলে নিতে বিভিন্ন ভাবে হুমকি প্রদান করে আসছে। এমনকি মামলা তুলে না নিলে আমাকে হত্যার হুমকি পর্যন্ত দেওয়া হয়। আমার জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে আমি চলতি বছরের গত ২৫ মার্চ গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (নং-৭৮১) দায়ের করি।

গোলাপগঞ্জ মডেল থানার এসআই একলাছ মিয়া বলেন- ‘আসামিকে ধরতে আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাচ্ছি। যখন যেখানে তথ্য পাইতেছি সেখানে যাচ্ছি।’