রাজারহাটে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর বাসায় হামলা, বঙ্গবন্ধু-প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুর

প্রকাশিত: ৪:১৯ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১০, ২০২১, 236 জন দেখেছেন

রাজারহাট (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি : কুড়িগ্রামের রাজারহাটে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাজারহাট সদর ইউনিয়নের নৌকা মার্কার প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ এনামুল হকের বাসায় হামলা এবং বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার ছবি সম্বলিত নৌকা প্রতীক ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার রাতে সদর ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী মোঃ এনামুল হক বাদী হয়ে রাজারহাট থানায় ২২জনের নাম উল্লেখপূর্বক ২৫০/৩০০ জনকে অজ্ঞাত নামীয় আসামী করে রাজারহাট থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার কুড়িগ্রাম ২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্যও কুড়িগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ জাফর আলী গতকাল  ৯ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার) সকাল ১১ ঘটিকার দিকে রাজারহাট সদর ইউনিয়ন হরিশ্বর তালুক গ্রামে গণসংযোগ শেষে রাজারহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পার্শ্ববর্তী ভাটারপাড় বাজার নামক এলাকায় পৌঁছিলে উপজেলা আওয়ামী লীগের অন্যতম সদস্য এবং রাজারহাট সদর ইউনিয়ন নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী রহিম বাদশা (মোটরসাইকেল মার্কা)’র সমর্থন কৃষকলীগের সদস্য হরিশ্বর তালুক এলাকার জনৈক নুরুন্নবী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জাফর আলীকে নৌকা মার্কার প্রার্থী এনামুল হকের বিরুদ্ধাচারণ করে অশ্লীল ভাষায় কথা বলা শুরু করে। পার্শ্বে নৌকা মার্কার প্রার্থী মোঃ এনামুল হক চেয়ারম্যান দাঁড়িয়ে থেকে সব কিছু শোনার একপর্যায়ে নুরুন্নবীকে জাফর ভাইয়ের সাথে পরে দেখা করে অভিযোগ দিতে বলেন এমতাবস্থায় নুরুন্নবী এনামুল চেয়ারম্যান সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পরে ।

পরবর্তী সময় ওই দিন আনুমানিক রাত ৮ ঘটিকার দিকে রাজারহাট ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের ৩ বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি মোঃ আজগার আলী ( টেলিফোনে মার্কা) উপজেলা যুবলীগের সাবেক সদস্য মোঃ মাজেদুর রহমান মন্ডল বুলন (ঘোড়া মার্কা) বনানী থানা (ঢাকা) স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাঃ সম্পাদক ও রাজারহাট উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য রহিম বাদশা (মোটর সাইকেল মার্কা) একত্রিত হয়ে রাজারহাট সদর বাজারে নৌকা হটাও মিছিল শেষে রাজারহাট হাসপাতাল রোডে মেকুরটারীস্থ এনামুল হক চেয়ারম্যানের ” চেয়ারম্যান বাড়ি ” নামক বাড়িতে হামলা চালিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি সম্বলিত নৌকা প্রতীক ভাংচুর এবং বাড়ি- ঘরে ইট পাটকেল দিয়ে ঢিল ছোঁড়ে জানালার গ্লাস ভাংচুর করে। পরে এলাকার লোকজন এসে পরিস্থিতি সামাল দেয়।

এ সময় কারো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় রাজারহাট থানায় এনামুল হক চেয়ারম্যান বাদী হয়ে ২২ জনের নাম উল্লেখ পূর্বক ২৫০/৩০০ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে এজাহার দায়ের করেন। ঘটনার পরপরই রাজারহাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন সহ আলামত সংগ্রহ করেন।