গোলাপগঞ্জের ভাদেশ্বরে নৌকার লবিংয়ে ব্যস্ত প্রার্থীরা, এগিয়ে যুবলীগ নেতা উজ্জ্বল

প্রকাশিত: ১২:৩৩ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১১, ২০২১, 166 জন দেখেছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট : সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার মধ্যে সুনামধন্য একটি ইউনিয়ন ভাদেশ্বর।

এই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে অংশ নিতে আগ্রহী প্রার্থীরা ইতোমধ্যে মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। অনেকে বিভিন্ন সামাজিক-রাজনৈতিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের মাত্রা বাড়ানোর পাশাপাশি নির্বাচনী মাঠ দখলে তৃণমূল নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় করছেন।

তবে এই ইউনিয়নে জানা যায়, আ.লীগের মনোনয়ন পেতে বেশ কয়েকজন নেতা দৌড়-ঝাপ শুরু করেছেন। তাদের প্রায় সকলেই দলীয় মনোনয়ন নিতে কেন্দ্রীয় নীতি নির্ধারণী ও তৃণমূল পর্যায়ে লবিং করছেন।

এর মধ্যে বিগত রমজান মাসে ও মহামারীকালীন সময়ে উপজেলা থেকে শুরু করে ভাদেশ্বর ইউনিয়নের অসহায় ও কর্মহীন অসচ্ছল মানুষের মধ্যে খাদ্য সহায়তা ও নগদ অর্থ ও সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করে তৃনমুলে ব্যাপক প্রশংসিত হচ্ছেন ব্রাজিল যুবলীগের প্রতিষ্টাতা আহবায়ক ও ভাদেশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আবু সুফিয়ান উজ্জ্বল।

তাছাড়া বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন গ্রাম হবে শহর এই প্রতিপাদ্য কে ধারণ করে ভাদেশ্বরের প্রত্যেকটি গ্রাম কে শহরে রুপান্তরিত করেতে চান। আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে আছেন যুবলীগ নেতা আবু সুফিয়ান উজ্জ্বল ।

নির্বাচনের ব্যাপারে যুবলীগ নেতা উজ্জ্বল বলেন- বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করছি। তাছাড়া কেন্দ্রীয় যুবলীগের চেয়ারম্যান ও সাধারণ সম্পাদকের নির্দেশে বিভিন্ন সামাজিক ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে আমি ধারাবাহিকতায় আমি সহযোগীতা করে আসছি। আমার সার্বিক কর্মকান্ড বিবেচনা করে নেত্রী যদি আমাকে মনোনয়ন দেন তবেই আমি নির্বাচন করবো।

ভাদেশ্বর ইউনিয়নের ভোটারদের কাছ থেকে জানা যায়, বেশীর ভাগ ভোটারদের ইচ্ছে যুবলীগ নেতা আবু সুফিয়ান উজ্জ্বল কে নৌকার মনোনয়ন নিয়ে চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চান। অনেকে আবার তাকে আমাদের চেয়ারম্যান বলে মেনে নিয়েছেন।

এলাকার একজন বীর মুক্তিযুদ্ধা বলেন- উজ্জ্বলের মতো ছেলে যদি আমাদের ইউনিয়নে চেয়ারম্যান দায়িত্ব পায় তাহলে আমরা আমাদের আশা-আবদার বলের জায়গা পাবো। আমরা সবাই ঐকবদ্ধ হয়ে তার সাথে আছি এবং থাকে নৌকা নিয়ে জয়ের মিছিল দিব। তাহলে এলাকায় মানুষের ভাগ্য খুলবে, উন্নয়ন হবে।

ক্ষমতাসীন দল বাংলাদেশ আ.লীগের অধিক সংখ্যক নেতা নৌকার প্রতীকের প্রত্যাশী হলেও দলের একাধিক নেতাকর্মীর সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, কেন্দ্র থেকে নৌকা নিয়ে যে আসবে তার পক্ষেই কাজ করবে সবাই।

নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র দাখিল ২৫ নভেম্বর। বাছাই ২৯ নভেম্বর। আপিল ৩০ থেকে ২ ডিসেম্বর। আপিল নিষ্পত্তি ৩ থেকে ৫ ডিসেম্বর। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ৬ ডিসেম্বর। প্রতীক বরাদ্দ ৭ ডিসেম্বর। আর ভোটগ্রহণ হবে ২৩ ডিসেম্বর।