পুরুষশূন্য গ্রামে নারী ভোটারদের উপচে পড়া ভিড়

প্রকাশিত: ১১:৫২ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ১১, ২০২১, 150 জন দেখেছেন

লাল সবুজ৭১ ডেস্ক : প্রশাসন, সাংবাদিক ও সাধারণ ভোটারদের দৃষ্টি ছিল কাথুলি ইউপির ৭ নম্বর ওয়ার্ডের আলোচিত লক্ষিনারায়নপুর ধলা গ্রামের ভোট কেন্দ্রটিতে।

নির্বাচনকে ঘিরে ৭ নম্বর ওয়ার্ডের দুই মেম্বার প্রার্থী উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেম্বার আতিয়ার রহমান ও বর্তমান মেম্বার আজমাইন হোসেন টুটুলের মধ্যে সহিংসতায় জাহারুল ইসলাম ও সাহাদুল ইসলাম নামে দুই ভাই নিহত হওয়ার দুই দিন পরেই অনুষ্ঠিত হচ্ছে নির্বাচন। সকাল থেকেই লক্ষীনারায়নপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে নারী ভোটারদের উপস্থিতি লক্ষ করা গেছে। তবে, খণ্ড খণ্ড আকারে আসছে পুরুষ ভোটারও।

হত্যাকাণ্ডে নেতৃত্ব দানকারী সাবেক মেম্বার আতিয়ার রহমানকে পাওয়া যায়নি। তবে বর্তমান মেম্বার আজমাইন হোসেন টুটুলকে ভোটারদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করতে দেখা যায়।

ভোট কেন্দ্রে বসেই আজমাইন হোসেন জানান, গত রাতে একটি ম্যাসেজ ছিল ভোট কেন্দ্রে কেউ আসলে তাকে জাহারুল সাহরুলের মতই প্রাণ দিতে হবে। এ সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় প্রশাসন রাত থেকেই ভোট কেন্দ্র এবং গ্রামে অবস্থান নেন। সকাল থেকেই নারী ভোটাররা আসতে থাকেন। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে পুরুষ ভোটাররাও এসে শান্তিপূর্ণভাবে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন।

গত ৮ নভেম্বর নির্বাচনী সহিংসতায় লক্ষীনারায়নপুর ধলা গ্রামে দুই ভাই নিহত হওয়ার পর থেকেই গ্রাম ছিলো জনশূন্য।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টায় ভোট গ্রহণ শুরু হওয়ার পর থেকেই ভোটার উপস্থিতি বাড়তে থাকে। লক্ষীনায়নপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে মোট ভোটার সংখ্যা ১ হাজার ৪২২জন। পুরুষ ভোটার ৬৭৮ এবং নারী ৭৪৪জন।

সুষ্ঠ পরিবেশে ভোটাররা ভোট প্রদান করছেন বলে নিশ্চিত করেছেন এ কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার মহাসিন আলী।