পুকুরে যুবকের লাশ, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বিক্ষোভ

প্রকাশিত: ৮:৫৬ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৬, ২০২১, 366 জন দেখেছেন

লাল সবুজ৭১ ডেস্ক : নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী পৌর এলাকায় পুকুর থেকে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

ইসকন মন্দিরের পুকুরে শনিবার সকাল ৮টার দিকে ২০ বছরের প্রান্ত চন্দ্র দাশের মরদেহ ভেসে ওঠে।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বেগমগঞ্জ সার্কেল) শাহ ইমরান। তিনি বলেন, ‘সকালে মরদেহটি ভেসে উঠেছে। আমরা বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি।’

ইসকন মন্দিরের পূজারী গোবিন্দ দাসের অভিযোগ, শুক্রবার পূজা মণ্ডপে হামলার পর থেকে নিখোঁজ ছিলেন প্রান্ত। সকালে ভেসে ওঠে মরদেহ।

এ ঘটনার পর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ১৪৪ ধারা ভেঙে প্রান্তর মরদেহ নিয়ে নোয়াখালী-ঢাকা মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা।

বিক্ষোভের মধ্যেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন। তিনি বিক্ষুব্ধদের সঙ্গে কথা বলে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও জড়িতদের আইনের আওতায় আনার আশ্বাস দেন।

বেগমগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ কামরুজ্জামান শিকদার বলেন, ‘১৪৪ ধারা ভেঙে মিছিল ও বিক্ষোভ করছে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা। আমরা তাদের মহাসড়ক থেকে সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছি।’

কুমিল্লার ঘটনার জেরে নোয়াখালীর চৌমুহনী পৌর এলাকায় শুক্রবার বিভিন্ন পূজামণ্ডপে হামলা-ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। এ সময় যতন সাহা নামে একজনের হৃদরোগে মৃত্যু হয় বলে জানায় পুলিশ।

বেগমগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহ্ ইমরান জানান, শুক্রবার দুপুরের পর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বিভিন্ন পূজামণ্ডপে দফায় দফায় হামলা-ভাঙচুর চালায় দুর্বৃত্তরা। চৌমুহনী কলেজ রোডের বিজয়া পূজা মণ্ডপে অগ্নিসংযোগের পাশাপাশি হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বেশ কয়েকটি বাড়িঘর ও দোকানপাটে হামলা ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে।

বিজয়া পূজামণ্ডপে দুর্বৃত্তদের হামলার সময় যতন সাহা হৃদরোগে মারা যান। এ সময় ১০ পুলিশসহ আহত হন অর্ধশতাধিক মানুষ। ফাঁকা গুলি, টিয়ার সেল নিক্ষেপ ও লাঠিচার্জ করে পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ।