চান্দিনায় স্মরণ-শ্রদ্ধায় প্রবীণ দিবস অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত: ১:২৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৬, ২০২১, 263 জন দেখেছেন

জেলা প্রতিনিধি, কুমিল্লা : মাথাভর্তি সাদা চুল, তারুণ্যের শারীরিক সক্ষমতা কিংবা কর্মচাঞ্চল্য নেই তাদের। কিন্তু তাদের মুখ-হাতে বলিরেখায় অভিজ্ঞতার ছাপ স্পষ্ট।

তাই প্রবীণদের অবহেলা করলে চলবে না, তাদের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে তবেই এগিয়ে যাওয়ার সম্ভব হবে।

বুধবার (৬ অক্টোবর) প্রবীণদের স্মরণ-শ্রদ্ধায় আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস উপলক্ষে চান্দিনা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন বক্তারা।

আলোচনা সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও) আশরাফুন নাহারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য, খ্যাতিমান চিকিৎসক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত (এমপি)।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন -চান্দিনা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা তপন বক্সী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জহিরুল ইসলাম মুন্সী, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাফিয়া আক্তার, পৌর মেয়র শওকত হোসেন ভূঁইয়া, চান্দিনা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আরিফুর রহমান, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হাজী আব্দুল মালেক।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি ডা.প্রাণ গোপাল দত্ত বলেন, ‘প্রতিটি ধর্মে প্রবীণদের সম্মান করার কথা বলা হয়েছে। সন্তানের দায়িত্ব, শৈশবে বাবা-মা যেমন সন্তানকে বড় করে, তাদের দেখে রাখে; তেমনি সন্তান বড় হয়ে বৃদ্ধ বাবা-মাকে দেখবে।’

তিনি আরো বলেন, এর আগে চান্দিনায় কেউ প্রবীণদের শ্রদ্ধা-সম্মান জানায়নি।প্রবীণদের অভিজ্ঞতা, দুঃখ-সুখের গল্প কেউ শুনেনি।এবার থেকে চান্দিনার প্রবীণ দিবস পালন করা হবে।প্রবীণদের শ্রদ্ধা-সম্মান জানানো হবে।তারা অবহেলার পাত্র নয়।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, চান্দিনা উপজেলা কৃষক লীগ সভাপতি ও মাইজখার ইউপি চেয়ারম্যান শাহ সেলিম প্রধান, নবাবপুর ইউপি চেয়ারম্যান শাহাবুদ্দিন মাস্টার, মহিচাইল ইউপি চেয়ারম্যান আবু মুসা মজুমদার,

বরকইট ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হাশেম,বরকরই ইউপি চেয়ারম্যান শিপন মজুমদার, এতবারপুর ইউপি চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ (আবু), কেরণখাল ইউপি চেয়ারম্যান হারুন-উর- রশিদ, জোয়াগ ইউপি চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান, বাতাঘাসি ইউপি চেয়ারম্যান খোরশেদ আলম, গল্লাই ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন,বাড়েরা ইউপি চেয়ারম্যান খোরশেদ আলম, সুহিলপুর ইউপি চেয়ারম্যান ইমাম হোসেন সরকার।

আলোচনা সভা শেষে উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের প্রবীণদের মাঝে গেঞ্জি, মাস্ক, নগদ অর্থ ও খাবার বিতরণ করা হয়।