রাজারহাটে শিক্ষকের বাঁশের আঘাতে আহত – ২

প্রকাশিত: ৪:০৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২১, 472 জন দেখেছেন

রাশেদ, স্টাফ রিপোর্টার, কুড়িগ্রাম:

কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট উপজেলার চাকিরপশার ইউনিয়নের পাঠক পাড়া গ্রামের পারিবারিক কলহের জের ধরে চাকিরপশার ইউনিয়নের জুলজালাল ও তার গং এর বাঁশের লাটির প্রচন্ড আঘাতে মোছাঃ জাহানারা বেগম ( ৪৫) ও জাহানারা বেগমের স্বামী নুর ইসলাম গুরুতর আহত হয় । জানাযায় ঘাতক জুল জালাল মাদরাসার শিক্ষক ও নিলেরকুটি জামে মসজিদের ইমামত হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছে।

সরজমিনে জানা যায় পাঠক পাড়া গ্রামের পারিবারিক কলহের জের ধরে মোঃ জাহানার বেগমের সাথে ঝগড়ায় লিপ্ত হয় জুল জালাল ও তার গং। ঝগড়ার এক সময় দেশীয় অস্ত্র ও বাঁশের লাটি নিয়ে এসে জাহানারা বেগমকে মারধর শুরু করে। পরে জাহানারা বেগম স্বামী মোঃ নুরইসলাম (৬০) এগিয়ে গেলে তাকেও ঘাতক জুল জালাল ও তার গং তাকেও মারধর করে, পরে এলাকাবাসী তাদের উদ্ধার করে রাজারহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে।

দায়িত্বরত চিকিৎসক আহত নুর ইসলামকে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয় এবং জাহানারা বেগমের অবস্থার অবনতি দেখে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়।

এ ঘটনার বিষয়ে মামলা না করার জন্য জুল জালাল গং বিভিন্ন ভাবে ভয় ভিতি দেখিয়ে আসছে নুর ইসলামের পরিবারকে। তারা আরো বলেন এই বিষয় নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে দেখা নিবে এবং হত্যাও হুমকি প্রদান করে।

এ বিষয়ে জাহানারা বেগম ছেলে মোঃ আরাফাত জামিল সাথে কথা বলে জানা যায় উন্নত চিকিৎসার জন্য আগামীকাল জাহানারা বেগমকে রংপুর সদর হাসপাতালে নেওয়া হবে এবং তিনি আরো জানান এ বিষয়টি নিয়ে মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

এ বিষয়ে রাজারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ রাজু সরকার বলেন উক্ত ঘটনাটি এখনো অভিযোগ পাওয়া যায় নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।