উলিপুরে ফাঁসিতে ঝুলে দাখিল পরীক্ষার্থীর আত্মহত্যা

প্রকাশিত: ৫:০৩ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২১, 248 জন দেখেছেন
উলিপুর প্রতিনিধি :
কুড়িগ্রামের উলিপুরে ফাঁসিতে ঝুলে মোজাহিদ হাসান মিলন (১৬) নামে এক দাখিল পরীক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে, রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) ভোররাতে কামাল খামার গ্রামের ইসলামপুর এলাকায়। এ ঘটনায় পুলিশ ওইদিন বিকালে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম মর্গে প্রেরণ করেছেন।
নিহতের স্বজন ও এলাকাবাসী ফরমান আলী (৫৫), আব্দুল লতিফ (৮৫), মশিউর রহমান (৩৩) ও বাবর আলী (৭৫) জানান, উপজেলার দূর্গাপুর ইউনিয়নের কামাল খামার গ্রামের ইসলামপুর এলাকার এরশাদুল হকের ছেলে মোজাহিদ হাসান মিলন স্থানীয় কামাল খামার ফাজিল ডিগ্রী মাদরাসার দাখিল পরীক্ষার্থী ছিল। তিনি রোববার ভোররাতে শয়ন ঘরের আড়ার সঙ্গে রশিতে ঝুঁলে আত্মহত্যা করেন। পরে খবর পেয়ে পুলিশ বিকালে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম মর্গে পাঠান।
এলাকাবাসী আরও জানান, মিলন এলাকায় সকলের কাছে একজন ভাল ছেলে ছিল। তিনি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়তেন। ছোট বেলা থেকেই মিলন মা-বাবার কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে দাদির আদর যত্নে বড় হয়ে উঠছিলেন। মিলন যখন ছোট ছিল তখন পিতা ও মাতা বিচ্ছিন্ন হয়ে আলাদা ভাবে পূর্ণরায় উভয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। মিলন শনিবার বিকালে মা মিনারা বেগমের সাথে দেখা করার জন্য বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের মন্ডলেরহাটে যান। সেখান থেকে রাতে ফিরে এসে এলাকায় বিভিন্ন দোকানে তার ধার-দেনা পরিশোধ করেন। এরপর খাওয়া দাওয়া শেষে ঘুমিয়ে পড়েন।
এলাকাবাসীর ধারনা রোববার ভোররাতের কোন এক সময় মিলন ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেন। তবে ঠিক কি কারনে তিনি আত্মহত্যা করলেন তা বুঝে উঠতে পারছেন না কেউ।
দূর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য নুর আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। উলিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমতিয়াজ কবীর জানান, মরদেহ উদ্ধার করে কুড়িগ্রাম মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।