নবীনগরে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন

প্রকাশিত: ১১:৩৬ অপরাহ্ণ, জুন ১৬, ২০২১, 345 জন দেখেছেন

নবীনগর ( ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধিঃ

পারিবারিক কলহের জেরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে হানিফ মিয়া নামে স্বামীর হাতে ৪ সন্তানের জননী মর্জিনা বেগম (৫৫) নামে এক নারী খুন হয়েছেন। বুধবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে উপজেলার সলিমগঞ্জ ইউনিয়নের নিলখী গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর থেকে ঘাতক স্বামী হানিফ মিয়া(৬৫) পলাতক রয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে একটি শাবল উদ্ধার করা হয়েছে। আজ দুপুরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা মর্গে প্রেরণ করেন

স্থানীয় গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘ ৪০ বছর আগে মর্জিনা বেগমের সঙ্গে হানিফ মিয়ার বিয়ে হয়। স্বামী হানিফ মিয়া নিলখী গ্রামের জারু মিয়ার ছেলে এবং স্ত্রী মর্জিনা বেগম একই উপজেলার বড়িকান্দি ইউনিয়নের মুক্তারামপুর গ্রামের মৃত জীবন মিয়ার মেয়ে। তাদের এক মেয়ে ও তিন ছেলে সন্তান রয়েছে। হানিফ মিয়া একজন মানসিক রোগী। প্রায়ই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কলহ হতো। এই অবস্থায় বুধবার সকালে নিজ বসত ঘরে স্ত্রী মর্জিনা বেগম এর সাথে পারিবারিক কলহের এক পর্যায়ে হানিফ মিয়া লোহার তৈরি শাবল দিয়ে স্ত্রী মর্জিনাকে মাথায় আঘাত করেন। গুরুতর আহত অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে চিকিৎসার উদ্দেশ্যে নরসিংদী নেয়ার পথে মর্জিনা বেগম মৃত্যুবরণ করেন। খবর পেয়ে নবীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আমিনুর রশিদ একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থল হতে মর্জিনা বেগম এর মৃতদেহ উদ্ধার করে নবীনগর থানায় নিয়ে আসেন।

নবীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) আমিনুর রশিদ জানান, দীর্ঘদিন থেকে মর্জিনা বেগমের সঙ্গে হানিফ মিয়ার পারিবারিক বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে বুধবার সকালে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে হানিফ মিয়া লোহার তৈরি শাবল দিয়ে মর্জিনা বেগমের মাথায় আঘাত করে। স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মর্জিনা বেগম মারা যান। ময়না তদন্তের জন্য মর্জিনা বেগম এর মৃতদেহ জেলা মর্গে প্রেরণ করা হবে। অভিযোগ পেলে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।