কক্সবাজার জেলা জুড়ে করোনা ঠেকাতে আবারও মাঠে প্রশাসন

প্রকাশিত: ৫:৩৩ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৩, ২০২১, 477 জন দেখেছেন

আবদুর রহিম স্টাফ রিপোর্টার:

আবারও বেড়েছে করোনা সংক্রমণ। যদিওবা কক্সবাজারে এখনও স্বাভাবিক। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন এই পরিস্থিতিতে আরো বেশি সতর্ক হওয়া প্রয়োজন। এই পরিস্থতিতে জেলাজুড়ে মাস্ক পরার বিষয়ে জনসচেতনতা তৈরিতে মাঠে নেমেছেন কক্সবাজার জেলা প্রশাসন।

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়সহ সরকারি-বেসরকারি অফিসগুলোতে আবারও জোরদার হচ্ছে ‘নো মাস্ক, নো সার্ভিস’ কার্যক্রম।

সোমবার (১৫ মার্চ) থেকেই জেলার বিভিন্ন স্থানে জনসচেতনতার জন্য মাইকিং শুরু করা হয়েছে। এরপরও মাস্ক ছাড়া কেউ বাইরে বের হলে গুণতে হবে জরিমানা।

সোমবার কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতের লাবণী পয়েন্ট, সুগন্ধা পয়েন্ট ও কলাতলী পয়েন্টসহ কক্সবাজার শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে মাইকিং করে সচেতনতামূলক প্রচারনা চালায় জেলা প্রশাসন।

মঙ্গলবার বেলা ১২ টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভা আহ্বান করা হয়েছে। ওই সভা থেকেই পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করা হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাদিয়া সুলতানা বলেন,সোমবার কক্সবাজারের বিভিন্ন পয়েন্টে সচেতনতামূলক প্রচারণা চালানো হয়েছে। তবে প্রথম দিন হিসেবে কাউকে জরিমানা করা হয়নি। মঙ্গলবার থেকে স্বাস্থ্যবিধি লংঘন করলে জরিমানা করা হবে।

জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ বলেছেন, ‘সাম্প্রতিক করোনা সংক্রমণ হার এবং মৃত্যুর হার গত কয়েক মাসের তুলনায় হঠাৎ কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে।

এজন্য সংক্রমণের হার রোধকল্পে সর্বক্ষেত্রে মাস্ক পরিধানসহ স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে সরকারের নির্দেশনা রয়েছে। কক্সবাজার যেহেতু পর্যটন জেলা এবং সমগ্র বাংলাদেশ থেকেই এখানে জনসাধারণের আগমন ঘটে, এজন্য এখানে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন বিষয়টি অন্যান্য জেলার তুলনায় অধিকতর গুরুত্বপূর্ণ।

সংক্রমণ হার যেন বৃদ্ধি পেতে না পারে কিংবা কেউ যেন করোনার কারণে স্বজনহারা না হয়, এজন্য জেলাবাসীকে ঘরের বাইরে সর্বত্র অবশ্যই মাস্ক পরিধানসহ স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে প্রতিপালনে বিনীত অনুরোধ করছি।’

জেলা প্রশাসক আরও বলেন, ‘জেলাবাসীর সাথে সাথে জেলায় আগত পর্যটকদেরও বিনীত অনুরোধ থাকবে সমুদ্র সৈকতসহ সর্বত্র যেন তারা মাস্ক পরিধান করেন এবং স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত সরকারের যাবতীয় নির্দেশনা মেনে চলেন।

পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্যদেরও স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে প্রতিপালনের অনুরোধ করছি। স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে প্রতিপালিত হচ্ছে কিনা সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় নজরদারি বৃদ্ধি করা হবে।’
সোমবার ১৫ মার্চ কক্সবাজার জেলায় মোট ১১ জন করোনা রোগী সনাক্ত করা হয়েছে।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাবে ৩৭৬ জনের নমুনা টেস্ট করে ১১ জনের টেস্ট রিপোর্ট পজেটিভ আসে। বাকী ৩৬৫ জনের নমুনা টেস্ট রিপোর্ট নেগেটিভ পাওয়া যায়। এনিয়ে সোমবার পর্যন্ত কক্সবাজার জেলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা হলো মোট ৬ হাজার ১১ জন।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ট্রপিক্যাল মেডিসিন ও সংক্রামক ব্যাধি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. শাহজাহান নাজির এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সোমবার করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী সনাক্তদের মধ্যে কক্সবাজার সদর উপজেলায় ৭ জন, উখিয়া উপজেলায় ১ জন, টেকনাফ উপজেলায় ১ জন এবং রোহিঙ্গা শরণার্থী ২ জন রয়েছে।