হ্নীলায় বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ; হ্নীলা স্টুডেন্ট ক্লাবকে হারিয়ে কাঞ্জরপাড়া মডেল স্টুডেন্ট ক্লাবের শুভ সুচনা

প্রকাশিত: ৬:১৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০২১, 503 জন দেখেছেন

আবদুর রহিম, স্টাফ রিপোর্টার::

হ্নীলা হাইস্কুল মাঠে আন্ত:উখিয়া-টেকনাফ বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টূর্ণামেন্ট-২০২১ইং ৪র্থ আসরের ৪র্থ দিনের খেলায় ক্রীড়া নৈপূন্যে হ্নীলা স্টুডেন্ট ক্লাবকে ১-০গোলে হারিয়ে শুভ সুচনা করেছে কাঞ্জরপাড়া মডেল স্টুডেন্ট ক্লাব।

১৫ফেব্রুয়ারী (সোমবার) বিকাল সোয়া ৪টায় হ্নীলা হাইস্কুল মাঠে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টূর্ণামেন্ট-২০২১ইং ৪র্থ আসরের ৪র্থদিনের খেলায় কাঞ্জরপাড়া মডেল স্টুডেন্ট ক্লাব বনাম হ্নীলা স্টুডেন্ট ক্লাবের মধ্যে অনুষ্ঠিত হয়। প্রথমার্ধ্বের খেলা মন্থর গতিতে আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণের এগিয়ে চললেও হ্নীলা স্টুডেন্ট ক্লাবের ১০নং জার্সিধারী খেলোয়াড় জুয়েল নিশ্চিত গোলের সুযোগ নষ্ট করেন। উভয় দল একাধিক গোলের সুযোগ পেয়েও গোল আদায় করতে না পারেনি।

এরই মধ্যে প্রতিপক্ষের একজন খেলোয়াড়কে অবৈধভাবে বাঁধা দেওয়ায় কাঞ্জরপাড়া মডেল স্টুডেন্ট ক্লাবের ১৬নং জাসিধারী খেলোয়াড় নুরুল বশরকে হলুদ কার্ড প্রদান করেন রেফারী। খেলার প্রথমার্ধ্বের সময় শেষ হওয়ায় রেফারী লম্বা বাঁশি বাজিয়ে মধ্যবিরতি ঘোষণা করেন।


মধ্যবিরতির পর পুনরায় খেলা শুরু হয়। আবারো উভয় দল দূরন্ত গতিতে প্রতিপক্ষের গোল পোস্টে আক্রমণ শুরু করে। ২য়ার্ধ্বে ১৬নং জার্সিধারী খেলোয়াড় প্রতিপক্ষের গোলপোস্টে ডাবল কিক করে গোলের মাধ্যমে দলকে ১-০ গোলে এগিয়ে নেন। এর পরই হ্নীলা স্টুডেন্ট ক্লাবের ১৬নং জার্সিধারী খেলোয়াড় জিয়াউর রহমান প্রতিপক্ষের গোলপোস্ট লক্ষ্য করে চমৎকার উড়ন্ত কিক করলেও সামান্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে উপর দিয়ে চলে যায়। এদিকে কাঞ্জর পাড়া স্টুডেন্ট ক্লাবের খেলোয়াড়েরা গোলের ব্যবধান বাড়ানোর চেষ্টা করেও আর গোলের দেখা পায়নি। খেলার নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ায় রেফারী লম্বা বাঁশি বাজিয়ে ৪র্থ দিনের খেলা সমাপ্তি ঘোষণা করেন। খেলায় চমৎকার নৈপূণ্য প্রদর্শন ও একমাত্র গোলদাতা কাঞ্জরপাড়া মডেল স্টুডেন্ট ক্লাবের ১৬নং জাসিধারী খেলোয়াড় নুরুল বশর ম্যান অব দ্যা ম্যাচ পুরস্কার লাভ করেন। খেলায় ম্যান অব দ্যা ম্যাচ পুরস্কার বিতরণ করেন হ্নীলা ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা মুফিজুর রহমান, আবুল কালাম আলম, মীর কাশেম সওদাগরসহ উপস্থিত অতিথিবৃন্দ।
উক্ত খেলায় প্রধান রেফারী ছিলেন শফিউল আলম,সহকারী রেফারী ছিলেন মোঃ সোহেল, মাসুম এবং ৪র্থ রেফারীর দায়িত্ব পালন করেন শফিকুল ইসলাম মাহাদি।

আগামীকাল ৫মদিনের খেলায় পালং স্পোটিং ক্লাব এবং পশ্চিম সিকদার পাড়া মইন্যাজুম ফুটবল একাদশ মুখোমুখী হবে।