দাউদকান্দির ইলিয়টগঞ্জ (দক্ষিণ) আইপিএম মডেল ইউনিয়ন পরিদর্শনে মহাপরিচালক

প্রকাশিত: ১:০৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৩০, ২০২১, 399 জন দেখেছেন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

পরিবেশ সম্মত কৌশল অবলম্বনে জৈবিক পদ্ধতিতে কোন ধরনের কীটনাশক ব্যবহার না করে নিরাপদ সবজি উৎপাদনের জন্য সারা দেশে মাত্র ১০টি ইউনিয়নকে সরকারিভাবে আইপিএম মডেল ইউনিয়ন ঘোষণা করা হয়েছে। চট্টগ্রাম বিভাগের একমাত্র আইপিএম মডেল ইউনিয়ন হচ্ছে কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার ইলিয়টগঞ্জ দক্ষিণ ইউনিয়ন। এখানে ৫০০ সবজি চাষীকে ২০টি গ্রুপে বিভক্ত করে ২৫ জনের একটি করে দল সৃষ্টি করে আইপিএম পদ্ধতিতে ৩০০বিঘা সবজির মাঠ প্রর্দশনী করা হয়েছে। এতে রয়েছে টমেটো, খিরা, মিষ্টি কুমড়া, স্কোয়াশ, লাউ। ঢাকা -চট্টগ্রাম মহাসড়কের সাথে ইলিয়টগঞ্জ বাজারের পশ্চিম পাশে টামটা, বিটমান, পুটিয়া, দৈয়াবাড়ি এবং দৌলতপুর মাঠে পরিবেশ সম্মত সবজি উৎপাদনের একক বৃহৎ প্রদর্শনী মাঠ সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। নিরাপদ সবজি, ফল উৎপাদনের পাশাপাশি কৃষক যেন সবধরনের চাষাবাদ স্বাস্থ্য সম্মত উপায়ে করে এবং ক্রেতা সাধারণ ও ভোক্তারা নিরাপদ খাদ্য গ্রহনের বিষয়ে সচেতন হয়ে উঠে এ বিষয়ে মতবিনিময় সভায় সভাপত্তিত করেন অতিরিক্ত পরিচালক মনোজিত কুমার মল্লিক। ফসলের মাঠ পরিদর্শন শেষে প্রধান অতিথি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ আসাদুল্লাহ বলেন পুষ্টি সমৃদ্ধ নিরাপদ খাদ্য উৎপাদন করতে হবে। স্বাগত বক্তব্য দেন দাউদকান্দি উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ সারোয়ার জামান। কৃষকের সমস্যা সম্ভাবনা সফলতা নিয়ে বক্তব্য রাখেন দুইবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদক প্রাপ্ত পরিবেশ যোদ্ধা মতিন সৈকত। এসময়ে উপস্থিত ছিলেন আইপিএম প্রকল্পের পরিচালক মোঃ আহসানুল হক চৌধুরী, কুমিল্লার উপ-পরিচালক মোঃ শহীদুল হক সহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের উর্ধতন কর্মকর্তারা। কৃষক সমাবেশে বক্তারা বলেন ফসলের মাঠ যেন পিকনিক স্পট। সৌন্দর্য রুচিবোধের পাশাপাশি অন্য সময়েও নিরাপদ সবজি উৎপাদনে কৃষক প্রশিক্ষণ লব্দ জ্ঞান কাজে লাগিয়ে অবদান রাখবে। মহাপরিচালক সহ অতিথিদেরকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান মতিন সৈকত।