নবীনগরে শীতের রাতে কম্বল হাতে নৈশ প্রহরীদের খুঁজে সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী

প্রকাশিত: ৭:০৮ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৯, ২০২০, 619 জন দেখেছেন

নবীনগর( ব্রাহ্মনবাড়ীয়া) প্রতিনিধীঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলা সকল বাজারে নিরাপত্তায় থাকা নৈশ প্রহরীদের খুঁজে খুঁজে বের করে এই কনকনে শীতের রাতের আঁধারে কম্বল বিতরণ করলেন নবীনগর থানা প্রেসক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক এম কে জসিম উদ্দিন, নবীনগর থানা প্রেসক্লাবের ১নং কার্যকরী সদস্য সাংবাদিক বাবুল,জিনদপুরের উদয়মান সমাজ সেবক মানবাধিকার কর্মী মোঃ হাসান উদ্দিন, বাজে বিশারা গ্রামের পল্লী বিদ্যুতে কর্মরত মানবাধিকার কর্মী মোঃ নুরুজ্জামান।

সোমবার ২৮/১২ মধ্যরাত থেকে শুরু করে রাতভর তীব্র কুয়াশায় মটর সাইকেলে করে উপজেলার পৌর এলাকা থেকে শুরু করে কোনাঘাট, শ্রীরামপুর, গোপালপুর, মানিকনগর, শ্যামগ্রাম,রছুল্লাবাদ, দশমৌজা,জিনদপুর, বটতলী, বাঙ্গরা,লাউর ফতেহপুর,বাশারুক ইব্রাহিমপুর পাল বাজার,বাঁশবাজার,সোহাতার মোড়,ভোলাচং,মাঝিকাড়া সহ আরো ছোট বড় বাজারের সকল নৈশ প্রহরীদের মাঝে শীত নিবারনে কম্বল বিতরণ করেন।

এই তীব্র শীতে কম্বল হাতে পেয়ে নৈশ প্রহরীরা বলেন,এই প্রথম কেউ আমাদের খুঁজে খুঁজে বের করে রাতের আঁধারে কম্বল বিতরণ করল ,আমরা এই ৪ জনের উজ্জ্বল ভবিষৎ কামনা করি।

এসম্পর্কে নবীনগর থানা প্রেসক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক এম কে জসিম উদ্দিন বলেন,আমরা নবীনগরে কিছু মানবিক কাজ করে সকলের হৃদয়ে স্থান করে নিতে চায় তারই ধারাবাহিকতায় এই কম্বল বিতরণ দিয়ে শুরু করলাম ভবিষ্যতে আরো ভাল কিছু করতে চায়।

রাতের আঁধারে কম্বল নিয়ে ছুটে চলা নবীনগর থানা প্রেসক্লাবের ১নং কার্যকরী সদস্য সাংবাদিক বাবুল বলেন,আমাদের গ্রাম কেন্দ্রীক বাজারগুলোর নিরাপত্তায় যারা রাতের কনকনে শীতে রাতভর পাহারায় নিয়োজিত থাকেন তাদের কথা চিন্তা করে আমরা এই উদ্যোগ গ্রহণ করেছি,ভবিষ্যতে আমরা নবীনগরে আরো ভাল কিছু করতে চায়। এটা আমাদের একান্তই ব্যক্তিগত উদ্যোগে করেছি।

এই সময় সাথে থাকা মানবাধিকার কর্মী হাসান উদ্দিন ও নুরুজ্জামান বলেন,আমাদের এই মহৎ কাজের জন্য সাংবাদিক বাবুল অনুপ্রাণিত করেছে, সত্যি আমরা এই কাজে থাকতে পেরে আনন্দিত ভবিষ্যতে আরো ভাল কিছু করতে চায় নবীনগরের অসহায় মানুষদের জন্য।

পরিশেষে তারা সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার জন্য আহব্বান করেন।