উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নতুন ভবন নির্মাণ কাজের শুরুতেই অনিয়ম,পরিদর্শন করে কঠোর হুশিয়ারী এমপি বুলবুলের

প্রকাশিত: ৫:৩০ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৪, ২০২০, 243 জন দেখেছেন

নবীনগর (ব্রাহ্মনবাড়ীয়া) প্রতিনিধিঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নতুন ভবন নির্মাণ কাজের শুরুতেই নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।

১১ ডিসেম্বর  (শুক্রবার) সকালে সরেজমিনে নির্মাণ কাজ পরিদর্শনে আসেন তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সংসদীয় কমিটির সদস্য ও স্থানীয় সাংসদ মো. এবাদুল করিম বুলবুল।

ভবন নির্মাণ কাজে নিম্নমানের রড ও ইট ব্যবহার করায় ক্ষুব্ধ হয় এমপি বলেন, কোন অনিয়ম ছাড় দেওয়া হবে না। তিনি আরো বলেন এইরকম নিম্নমানের রড ও ইট দিয়ে কাজ করলেন এই ভবন ১০ বছর পরে ভেঙ্গে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে কঠিন হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন কোন অনিয়ম ছাড় দেওয়া হবে না।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মনির, জেলা পরিষদ সদস্য বোরহান উদ্দিন আহমেদ, ভাইস চেয়ারম্যান জাকির হোসেন সাদেক, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. হাবিবুর রহমান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি এডভোকেট সুজিত কুমার দেব, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম নজু, এমপির এপি.এস মুক্তার হোসেন সিকদার, আওয়ামীলীগ নেতা সাইফুর রহমান সোহেল, ইউপি চেয়ারম্যান এসোসিয়েশনের সভাপতি মোহাম্মদ ফিরোজ মিয়া, আওয়ামীলীগ নেতা শামীম রেজা, যুবলীগ নেতা পারভেজ আহমেদ, আশরাফুল আলম জনি, ছাত্রলীগ নেতা আবু সাঈদ, নাছির উল্লাহ প্রমুখ।

সূত্র জানায়, উপজেলা কমপ্লেক্স সম্প্রসারণ প্রকল্পের আওতায় তিনতলা বিশিষ্ট একটি ভবন, স্যানেটারি, বৈদ্যুতিক, গ্যারেজ, সাব-স্টেশন নির্মাণের জন্য ২০২০ সালের এপ্রিল মাসে কার্যাদেশ দেওয়া হয়।
কাজটি বাস্তবায়নের দায়িত্ব পায় মেসার্স প্রাইম ইন্টারন্যাশনাল নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।
ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি কাছে অনিয়মের ব্যাপারে জানতে চাইলে বলেন,

ভবনটির নির্মাণ ব্যয় ধরা হয় ৮ কোটি ৯৭ লাখ টাকা। দরপত্র চুক্তি অনুযায়ী চলতি এক বছরের মধ্যে কাজটি শেষ হওয়ার কথা।

পরে উপজেলা হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়।