উখিয়ায় যানবাহনের চাপ : টার্মিনাল নির্মাণের দাবি

প্রকাশিত: ৭:০৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৩, ২০২০, 350 জন দেখেছেন

আবদুর রহিম

উখিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

রোহিঙ্গা অধ্যুষিত ব্যয় বহুল গ্রামীণ শহরের নাম উখিয়া। উখিয়া ইতিমধ্যে মানবতার শহরে পরিচিতি পেয়েছে বিশ্বব্যাপী। এই শহরের মানুষগুলো যানজট ও জনজটে পৃষ্ট হয়ে চরম জনদুর্ভোগে পড়েছে। প্রতিদিন ভোর হলেই মানবতার সেবাই নিয়োজিত এনজিও গাড়ির বহরে বাড়তি চাপ পড়ে। হাজার হাজার যানবাহন কক্সবাজার-টেকনাফ সড়ক দিয়ে চলাচল করছে। ঘন্টার পর ঘন্টা আটকে থাকা যানবাহনে যাত্রীদের অপেক্ষায় থাকতে হয়। শীতের সমাগমে আসতে শুরু করেছে দেশি-বিদেশি পর্যটক। অপরুপ সৌন্দর্য উপভোগ করতে আসা পর্যটকরা বিরক্তবোধ করছে। সরকার যোগাযোগ ব্যবস্থার অভূতপূর্ব উন্নয়ন করলেও সিস্টেম লসের কারণে ও অব্যবস্থাপনায় কাজে আসছে না। কক্সবাজার-টেকনাফ সড়ক প্রসস্থকরণ করে দৃষ্টিনন্দন করা হলেও রাস্তার দু-পাশ অবৈধ দখলে রাখায় যানজট নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রতিদিন ৭ টা হতে ১১ টা আবার দুপুর ২ টা হতে সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত কক্সবাজার থেকে আসা যাওয়া করছে শত শত এনজিওর প্রাইভেট গাড়ির বহর। পাশাপাশি রোহিঙ্গাদের জন্যে আনা-নেয়া করছে পণ্যবাহি ট্রাক। যাত্রীবাহী পরিবহন। এখানে ট্রাফিক পুলিশ অসহায়। হাতে গোনা কয়েকজন পুলিশ উত্তপ্ত গরমে রাস্তায় দাঁড়িয়ে থেকে দায়িত্ব পালন করতে দেখা যায়। পরিকল্পিত উখিয়া চাই এর আহবায়ক সাংবাদিক নুর মোহাম্মদ সিকদার বলেন, সব কিছু অপরিকল্পিতভাবে চলছে। একটি সুন্দর নীতিমালা দরকার। কেউ এগিয়ে আসে না। যে যার যার মত করে চলছে। এভাবে চলতে পারে না। আমরা যেখানে আগে ১০ মিনিটের মধ্যে উখিয়া থেকে কোটবাজার যেতে পারতাম আজ সেখানে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করতে হচ্ছে। সময়ের অপচয় হচ্ছে। দায়িত্বশীল রাজনীতিবিদদের সমন্বয়ে উখিয়ার সার্বিক উন্নয়নে এগিয়ে আসতে হবে। তিনি সংলিষ্ট সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহবান জানান। পরিবহন ও শ্রমিক নেতা সাকিল বলেন, শুক্রবার ছাড়া যানবাহনের বাড়তি চাপ পড়ে উখিয়া এলাকায়। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যাত্রীবাহী পরিবহনের চাপ বাড়ছে। উখিয়ায় কোন বাস টার্মিনাল না থাকায় রাস্তার উপর যত্রতত্র সী লাইন ও কক্স লাইন সার্ভিস যাত্রী ওঠানামা করছে। সচেতন মহল মনে করেন, উখিয়ায় একটি বাস টার্মিনাল তৈরি করে যানজটের কবল থেকে রক্ষা করা দরকার। পণ্যবাহী ট্রাক ঘন্টার পর ঘন্টা রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকে। আবার অধিকাংশ স্থানে গাড়ি মেরামতের জন্যে রাখা হয়। অন্যদিকে রাস্তার কাজও এখন পুরোদমে শুরু হয়েছে তাই দীর্ঘ যানজট লেগেই থাকে। আলোকিত উখিয়ার সম্পাদক মিজানুর রশিদ মিজান বলেন, আমি ঢাকায় যাচ্ছি। প্রায় দেড় ঘন্টা অপেক্ষা করতে হয়েছে আমাকে। দীর্ঘ যানজটের কারণে যেতে পাচ্ছি না। কর্তৃপক্ষের নজর দেয়া দরকার।