মোংলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন উদ্বোধন করেন,বেগম হাবিবুন নাহার এম পি।

প্রকাশিত: ৬:৫৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৫, ২০২০, 336 জন দেখেছেন

মিজানুর রহমান,মোংলা (বাগেরহাট)

খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, মুক্তিযোদ্ধাদের ভাগ্যে উন্নয়নে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা অনেক অবদান রেখেছেন। তিনি মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বাড়িয়ে ১২ হাজার টাকায় উন্নীত করেছেন। খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা দ্বিগুন করেছেন।সরকারি চাকুরী,শিক্ষা,চিকিৎসা ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তানদের জন্য সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করেছেন।পর্যায়ক্রমে দেশের সকল মুক্তিযোদ্ধাদের আবাসনের ব্যবস্থা করা হবে।বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) সকাল ১১ টায় উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কমলেশ মজুমদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পরিবেশ,বন ও জলবায়ু উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার,উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ফকির আবুল কালাম,সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইদ্রিস আলী ইজারাদার,উপজেলা আওয়ামীগের সভাপতি সুনীল কুমার বিশ্বাস,উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার।তালুকদার আব্দুল খালেক আরো বলেন,
বিএনপি সরকারের আমলে মুক্তিযোদ্ধাদের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়নি।তবে কিছু কিছু মুক্তিযোদ্ধা আছেন যারা বিএনপির আমলে অনেক লাফালাফি করেছেন।ইতিহাস বিকৃতির চেষ্টা করেছেন। তারা মনে রাখবেন বিএনপি সরকার কোনোদিন মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান মর্যাদা দিতে পারে নাই।অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন সহকারি কমিশনার (ভূমি) নয়ন কুমার রাজবংশী,অফিসার ইনচার্জ ইকবাল বাহার চৌধুরী,উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মিসেস কামরুন নাহার হাই, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমান,সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব শেখ কামরুজ্জামান জসিম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ইব্রাহিম হোসেন,বুড়িরডাঙা ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নিখিল চন্দ্র রায়,চিলা ইউপি চেয়ারম্যান গাজী আকবর হোসেন,সুন্দরবন ইউপি চেয়ারম্যান কবির উদ্দিন,চাঁদপাই ইউপি চেয়ারম্যান মোল্লা তারিকুল ইসলাম,মিঠাখালি ইউপি চেয়ারম্যান ইস্রাফিল হাওলাদার, সোনাইলতলা ইউপি চেয়ারম্যান নাজিনা বেগম নার্জিনা,পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মিজানুর রহমান তালুকদারসহ স্থানীয় আওয়ামীলীগের বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।