গৌরিপুরে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবি’র এক সক্রিয় সদস্য আটক

প্রকাশিত: ৭:৩৩ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২, ২০২০, 561 জন দেখেছেন

বিশেষ প্রতিনিধি (ময়মনসিংহ) 

র‌্যাব-১৪ কর্তৃক ময়মনসিংহ জেলার গৌরিপুর থানাধীন কলতাপাড়া চুড়ালী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে উগ্রবাদীবই, উগ্রবাদী প্রচারণা সংক্রান্ত লিফলেটসহ নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবি (জামায়াতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ ) এর একজন সক্রিয়সদস্যকে আটক করেছেন। ময়মনসিংহ র‌্যাব-১৪ কর্তৃক প্রেরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার ও মিডিয়া অফিসার জোনাঈদ আফ্রাদ জানান, র‌্যাব-১৪ এর ব্যাটালিয়ন সদরএর একটি আভিযানিক দল শম্ভুগঞ্জ বাজার এলাকায় টহল ডিউটি চলাকালীন গত ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ইং তারিখ রাত অনুমান ২২.১০ ঘটিকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারেন যে, ময়মনসিংহ জেলার গৌরিপুর থানাধীন কলতাপাড়া চুরাইল সাকিনস্থ মোঃ সাইদুলের বাসা এর পূর্ব দিক হতে ২নং কক্ষের ভিতর ০১ জন নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবির সদস্য ছদ্ম বেশে অবস্থান করছে। উক্ত সংবাদটি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করলে কর্তৃপক্ষ ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ের জন্য টহল কমান্ডারকে নির্দেশ দিলে তিনি সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্সসহ গত ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ইং তারিখ রাত অনুমান ২২.৫০ ঘটিকায় ময়মনসিংহ জেলার গৌরিপুর থানাধীন কলতাপাড়া চুরাইল সাকিনস্থ মোঃ সাইদুলের বাসা এর পূর্ব দিক হতে ২নং কক্ষের সামনে উপস্থিত হলেই উনিফর্ম পরিহিত র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে ০১ জন ব্যক্তি পালানোর চেষ্টাকালে সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্সের সহায়তায় আসামী মোঃ ইয়াছিন আরাফাত (২২), পিতা- আবুল ফয়েজ, সাং-শাহবাজপুর, থানা- সরাইল, জেলা- ব্রাহ্মণবাড়িয়া, এপি- গ্রাম-

কলতাপাড়াচুড়ালী, থানা- গৌরিপুর, জেলা- ময়মনসিংহকে আটক করা হয় এবং তার হেফাজত থেকে১। উগ্রবাদী বই ০৩ টি, ২। উগ্রবাদী প্রচারণা সংক্রান্ত লিফলেট ০৫ টি, ৩। পাওয়ার ব্যাংক ০১ টি, ৪। এটিএমকার্ড ০১ টি, ৫। পেনড্রাইভ ০১ টি, ৬। কার্ড রিডার ০১ টি, ৭। মেমোরিকার্ড ০১ টিএবং ৮। মোবাইল ০১টি উদ্ধার করা হয়।গ্রেফতারকৃত আসামীকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ ও অনুসন্ধানে জানা যায় যে, উক্ত ব্যক্তি নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবির সক্রিয় সদস্য। ধৃত আসামীর স্থায়ী ঠিকানাসাং-শাহবাজপুর, থানা- সরাইল, জেলা- ব্রাহ্মণবাড়িয়া এবং সে বর্ণিত এলাকা থেকে এসে গৌরিপুর থানাধীন কলতাপাড়া চুড়ালী এলাকায় একা বাসা ভাড়া নেয়। সেরাতের বেলা গোপনে উল্লিখিত ঘটনাস্থলে ছদ্মবেশে অবস্থান করতঃ উগ্রবাদীবই ও উগ্রবাদী প্রচারণা সংক্রান্ত লিফলেট বিতরণ করতো। সে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে বিভিন্ন ধর্মীয় উগ্রবাদী গ্রুপের সাথে যুক্ত ছিল। সেখান থেকে উগ্রবাদ সম্পর্কিতবই ও লিফলেট সংগ্রহ করতো এবং উগ্রবাদী কার্যক্রমে অংশ গ্রহণ করতো। উল্লিখিত ব্যক্তি নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন সামাজিক যোগাযোগসহ ইন্টারনেটের মাধ্যমে প্রচার প্রচারণা করতো বলে একটি বিশেষ গোয়েন্দা সংস্থার নিকট তথ্য ছিল।
এছাড়াও সে বেসামরিক ও রাষ্ট্রীয়গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা/ব্যক্তিবর্গের উপর লোন উলফ আক্রমণের পরিকল্পনা করছিল বলেও একটি গোয়েন্দা সংস্থার তথ্যমতে জানাযায়। সে উগ্রবাদের প্রতি উদ্বুদ্ধ হয়ে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবির সমর্থক এবং সক্রিয় সদস্য হয়ে উঠে।