ওয়াহিদার পাড়া থেকে জোটপুকুরিয়া বাজার পর্যন্ত সড়কের বেহাল দশা

প্রকাশিত: ৬:৪০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০, 439 জন দেখেছেন

মোঃ সেলিম উদ্দিন, স্টাফ রিপোর্টার,কক্সবাজার।

সাতকানিয়া উপজেলার অন্তর্গত কান্চনা ইউনিয়নের পাশে ৬ নং এওচিয়া ইউনিয়ন একটি জনবহুল এলাকা। এওচিয়য়া ইউনিয়ন এর সকল এলাকাবাসীর দীর্ঘ দিনের দাবি উক্ত সড়ক পাকা করনের, সাতকানিয়া লোহাগড়া সংসদীয় আসনের,  এমপি ডক্টর প্রফেসর আবু রেজা নিজাম উদ্দিন নদভীর। সু দৃষ্টি কামনা করে এলেকাবাসী বলেন, গাটিয়া ডেংগা ০৮ নং ০৯ নং ০৭ নং ওয়ার্ড এর চলাচলের এক মাত্র রাস্তা হওয়ায়
রাস্তার বেহাল দশা, দুর্ভোগ স্হানীয়দের,
পশ্চিম গাটিয়াডেঙ্গা গ্রামের ওয়হিদার পাড়া হতে জোটপকুরিয়া পর্যন্ত ০৩ কিলোমিটার রাস্তা একেবারে কাঁচা।

রাস্তা বললেও ভুল হবে। দেখতে অনেকটা ধান রোপণ করার উপযোগী ক্ষেতের মতো। গাড়ি চলাচল দূরে থাক, হেটে পার হওয়াই মুশকিল। তারপরও প্রয়োজনের তাগিদে ওই রাস্তা দিয়েই চলাচল করতে হচ্ছে, হাজার হাজার স্কুল মাদ্রাসার ছাত্রছাত্রী সহ গ্রামবাসীকে। এই রাস্তা পার হতে গিয়ে পিছলে পড়ে চরম ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে এওচিয়া ইউনিয়নের পশ্চিম গাটিয়াডেঙ্গা সহ ওয়াহিদার পাড়া গ্রামের অধিবাসীদের।

কোনো আত্মীয়স্বজনও এই গ্রামে আসতে চায় না। এই গ্রামের অসুস্থ রোগীকে কাঁধে করে হাসপাতালে নিয়ে যেতে হয়। মাত্র ০৩ কিলোমিটার রাস্তা পাকা না হওয়ায় চরম ভোগান্তিতে রয়েছেন পশ্চিম গাটিয়াডেঙ্গা ০৮ নং ০৯ নং ০৭ নং ওয়ার্ড এর অধিবাসীরা।

কাঁচা রাস্তার কারণে বর্ষা মৌসুমে চরম দুর্ভোগে পড়তে হয় এই অঞ্চলের জন সাধারণকে। ফলে রাস্তাটি চলাচলের একেবারেই অযোগ্য থাকে বছরের প্রায় অর্ধেক সময়। শুষ্ক মৌসুমেও রাস্তাটির কাদা শুকিয়ে থাকায় চলাচল সহজ হয় না। তাই রাস্তাটির কারণে মানবেতর জীবন যাপন করতে হচ্ছে এই জনপদের বাসিন্দাদের।

এলাকাবাসী জানান, দীর্ঘদিন কোনো সংস্কার না করায় এই কাঁচা রাস্তাটি বর্ষা মৌসুমে তা গভীর কাদায় পরিণত হওয়ায় একেবারেই চলাচলের অযোগ্য হয়ে যায়। রাস্তাটি সংস্কার ও পাকাকরণের ব্যাপারে এলাকাবাসী আশা করেন, সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার এমপি’র সহযোগিতায় রাস্তাটি পাকা করন সম্ভব রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার লোক চলাফেরা করে।সেই রাস্তাটি এখন জন দুর্ভোগ এর কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

স্বাধীনতার ৪৯ বসর পরেও উক্ত রোড,কাঁচা থেকে গেছে, আজ হতে ২ বছর আগে রাস্তাটি এমপি এওচিয়া ইউনিয়ন পরিষদ এর চেয়ারম্যান এবং এলাকাবাসীর সহযোগীতায়,মাটি ভরাট এর কাজ,সম্পন্ন করা হয়, উপজেলাতে এমন অবহেলিত রাস্তার দেখা পাওয়া মুশকিল! একটু বৃষ্টি হলে রাস্তা দিয়ে চলাফেরা করা খুবই কষ্টদায়ক। এমনকি কোন সিএনজি,রিক্সা ও চলতে পারে না। ফলে জনগণকে পরতে হয় চরম বিপাকে! এই দুর্ভোগ এর শেষ কখন হবে কেউ জানে না এলাকাবাসী এমপি ও এওচিয়া ইউনিয়ন পরিষদ এর চেয়ারম্যান এর সুদৃষ্টি আশা করে বলেন!

সংসদ সদস্য ডঃ আবু রেজা মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন নদভী মহোদয়, সু দৃষ্টি দিলেই অসংখ্য জনসাধারণ এর আশাপূরণ করতে পারেন। কারন এমপি  চাইলে দ্রুত উক্ত রাস্তার ব্রিক চলিন করে হাজার হাজার জনসাধারণ ও স্কুল পড়ুয়া ছাত্র ছাত্রী কে দূর্ভোক থেকে বাঁচাতে পারেন, এবং একমাএ এমপি মহোদয় পারেন সঠিক ব্যবস্থা নিয়ে জন দুর্ভোগ দূর করতে।