দেশের ২য় বৃহত্তম সেচ প্রকল্প মেঘনা ধনাগোদা বেড়িবাঁধে হঠাৎ ভাঙন

প্রকাশিত: ৯:১৮ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২০, 740 জন দেখেছেন

মোঃ মাইন উদ্দিন চৌধুরী, মতলব উত্তর (চাঁদপুর)  

মতলব উত্তরে মেঘনা ধনাগোদা বেড়িবাঁধের ফরাজীকান্দি ইউনিয়নের কাচারীকান্দি এলাকায় ব্যাপক ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে এবং বাঁধ রক্ষার কয়েক শতাধিক যুবক প্রানপন কাজ করে যাচ্ছে।

শুক্রবার রাত আনুমানিক নয়টার দিকে মতলব উত্তর উপজেলা ফরাজিকান্দি ইউনিয়নের জনতা বাজার সংলগ্ন কাচারীকান্দি এলাকা দিয়ে মেঘনা নদী লাগোয়া মূল বাঁধে ভাঙ্গন দেখা দেয়। অল্প সময়ের মধ্যে নদীর তীরবর্তী অংশের ২০০ মিটার অঞ্চল ভেঙে নদীতে বিলীন হতে থাকে। পানি বৃদ্ধির কারণে ভাঙ্গন ক্রমশ বাড়তে থাকে এবং অল্প সময়ের মধ্যেই বাঁধের ব্যাপক অংশ ভেঙে যায়। চারদিকে খবর ছড়িয়ে পড়লে অল্প সময়ের মধ্যে সহস্রাধিক লোকজনের সমাগম ঘটে। কয়েক শতাধিক যুবক নিজ উদ্যোগে ৭/৮ ট্রলি গাড়িতে করে জনতা বাজার, চরমাছুয়া এলাকায় বাঁধ রক্ষার কাজে প্রস্তুত করা কয়েক সহস্রাধিক জিউটেকের বালির বস্তা এনে বাঁধ রক্ষার কাজে নেমে পড়েন। স্থানীয় আমিরাবাদ বাজারে বাশেঁর বাজার থাকায় সেখান থেকে বাশঁ এনে এরইমধ্যে পাইলিং এর ব্যবস্থা করতে থাকে। রাত বারোটার দিকে সর্বশেষ অবস্থা ছিল শতাধিক যুবক বাঁধ মেরামতের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে প্রাণপন।

খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা স্নেহাশীষ দাস, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার(মতলব সার্কেল) আহসান হাবীব, মতলব উত্তর থানার অফিসার ইনচার্জ নাসির উদ্দিন মৃধা, উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর সাধারন সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ, মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্প পানি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক সরকার আলাউদ্দিন ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন।

এলাকাবাসী বলেন দীর্ঘদিন যাবত ষাটনল থেকে আমিরাবাদ পর্যন্ত মেঘনা নদী থেকে অবৈধ বালু উত্তোলনের কারণে আজকে বেড়িবাঁধ ভাঙনের অন্যতম কারণ। যদি এখনই এই অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ না করা হয় তাহলে মেঘনা ধনাগোদা বেড়িবাঁধ টিকিয়ে রাখা সম্ভব হবে না। আমরা চাঁদপুর ২ মতলবের মাননীয় সংসদ সদস্যের নিকট আবেদন করছি আপনি অনতিবিলম্বে অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।