মুজিব বর্ষ উপলক্ষে নাসিরের ৪ হাজার চারা রোপণ ।

প্রকাশিত: ৬:১৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৫, ২০২০, 881 জন দেখেছেন

জুড়ী (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধিঃ

আমাদের দেশে মোট বনভূমির পরিমাণমতো মাত্র ৯-১০ শতাংশ, যেখানে একটি দেশের ২৫ শতাংশ বনভূমি থাকা দরকার। এই বনভূমি বাড়াতে সামাজিক বনায়ন রাখতে পারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। উঠান, বনভূমি ও রাস্তার দুই পাশের গাছ সৌন্দর্যবর্ধনের পাশাপাশি দেশে জলবায়ু রক্ষায় রাখবে ভূমিকা।

স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু দেশ গঠনের প্রতিটি ক্ষেত্রের মতো একটি সবুজ বাংলাদেশ গড়ে তোলার স্বপ্নের বীজ বপন করে দিয়েছিলেন। যুদ্ধের সময় প্রকৃতির যে ক্ষতি হয়েছিল, সে ক্ষতি কাটিয়ে ওঠার জন্য তিনি দেশব্যাপী বৃক্ষরোপণ কার্যক্রম হাতে নিয়েছিলেন। গণভবন, বঙ্গভবন ছাড়াও ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের অনেক গাছ বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি বহন করে। উপকূলীয় অঞ্চলে যে সবুজ বেষ্টনী আমরা দেখি, তা–ও শুরু হয়েছিল বঙ্গবন্ধুর হাত ধরেই। মোটকথা বাংলাদেশের জীববৈচিত্র্য ও জলবায়ুর ভারসাম্য রক্ষায় তিনি দেশের মানুষকে বৃক্ষরোপণে উদ্বুদ্ধ করেছিলেন।

২০২০ সালে জাতির জনকের শততম জন্মবার্ষিকী। এ বছরে সরকারি–বেসরকারিভাবে নানা কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে। মুজিব বর্ষ উপলক্ষে জাতির জনকের সবুজ বাংলাদেশ গড়ার অভিপ্রায়ে এক ব্যতিক্রম উদ্যোগ নিয়েছেন মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলার গোয়ালবাড়ি ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নাসির উদ্দিন এর নিজ অর্থায়নে ৪০০০ হাজার গাছের চারা রোপণ করবেন। বিভিন্ন কাঠ ও ফলদ বৃক্ষ
নিজের টিলায় ও আশপাশের রাস্তার পাশে বৃক্ষ রোপণ করছেন।