ক্রীড়া সংগঠক নোমি নোমানের উপর দূর্বৃত্তদের হামলা থানায় অভিযোগ

প্রকাশিত: ২:১৪ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১৫, ২০২০, 859 জন দেখেছেন

রাশেদ স্টাফ রিপোর্টার, কুড়িগ্রাম

ক্রীড়া সংগঠক রায়হান কবীর নোমি নোমান এর উপর দূর্বৃত্তদের হামলার ঘটনা ঘটেছে । মঙ্গলবার(১৪ জুলাই) রাত ৮টার দিকে হরিকেশ মধ্যপাড়ায় এ ঘটনাটি ঘটে ।

জানা যায়,হরিকেশ মধ্যপাড়ার বাসিন্দা মোঃ বকবুল হোসেন(৫০) ও তার ছেলে জাহিদুল হোসেন(২২) ক্রীড়া সংগঠক নোমি নোমান কে ফোন করে ডেকে তার বাড়ির পাশে নিয়ে যায় এবং তার উপর ১৫ থেকে ২০ জন ওতর্কিত হামলা করে ।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, অভিযুক্ত বকবুল হোসেনে একই এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে সুদের ব্যবসা করে আসছিলো। নোমি নোমান এর বন্ধু একই এলাকার মোস্তাফিজুর রহমানের পুত্র মোঃ মাসুম অভিযুক্ত বকবুল হোসেন এর কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা সুদের উপর ঋণ নেন ব্যবসা করার জন্য। ২০ হাজার টাকায় পরবর্তীতে বেশি সুদ দাবি করলে,নোমি নোমান অভিযুক্ত বকবুল হোসেন কে কয়েকবার সরাসরি সুদের টাকা কম নেয়ার অনুরোধ করেন।

বকবুল এ কথায় রাজি না হলে পরবর্তীতে এলাকাবাসী বসে বিষয়টি মিমাংসার চেষ্টা করেন। এই ঘটনার জের ধরে নোমি নোমাকে ফোনে ডেকে নিয়ে তার উপর হামলা করা হয়।

এ বিষয়ে হামলার শিকার নোমি নোমান জানান,”আমাকে রাত ৮টার দিকে বকবুল হোসেনের পরিচিত নোমানুর রহমান নামে ব্যক্তি ফোনে ডেকে নিয়ে যায় এবং ১৫-২০ জন অতর্কিত হামলা করে।

সিরাজুল ইসলাম এর পুত্র নোমি নোমান বসুন্ধরা কিংস, ফুটবল উন্নয়ন সমিতি, এফসি উত্তরবঙ্গ সহ কয়েকটি ক্রীড়া সংগঠনেরর সাথে জড়িত।

কুড়িগ্রাম ক্রীড়া উন্নয়ন সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জালাল হোসেন লাইজু বলেন, নোমি নোমান একজন ক্রীড়ামনস্ক ছেলে,তার উপর এমন হামলার তীব্র নিন্দা জানাই ও দোষীদের শাস্তি দাবি করছি ।”

এ বিষয়ে অভিযুক্ত বকবুল হোসেন এর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি। আরেক অভিযুক্ত বকবুল হোসেন’র ছেলে জাহিদুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি অপ্রীতিকর ,আমরা তাকে মিমাংসা করার জন্য ডেকে এনেছিলাম,কিন্তু কোন মারধর করা হয়নি।বর্তমানে নোমি নোমান কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের ৪ নং ওর্য়াডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন

কুড়িগ্রাম সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহফুজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান,অভিযোগ পেয়েছি ,তদন্ত করে দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে।