আবারো হু হু করে বাড়ছে কুড়িগ্রামের নদনদীর পানি

প্রকাশিত: ৪:৫৫ অপরাহ্ণ, জুন ২৭, ২০২০, 742 জন দেখেছেন

স্টাফ রিপোর্টার,কুড়িগ্রামঃ-

গত কয়েক দিনের টানা বর্ষন ও উজানের ঢলে কুড়িগ্রামে নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় নদী ভাঙন তীব্র আকার ধারন করেছে। এ অবস্থায় নদী ভাঙনের শিকার পরিবারগুলো দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। ভাঙন রোধে দ্রুত কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহন করতে সরকারী পদক্ষেপের দাবী করছেন তারা।

বর্ষার শুরুতেই কুড়িগ্রামের ব্রম্মপুত্র, ধরলা, তিস্তা ও দুধকুমরের অন্তত: ১৫টি পয়েন্টে নদ-নদীর ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। রাজারহাটের ছিনাই ইউনিয়নের জয়কুমার, কামারপাড়া, কালুয়া, বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের রামহরি, চতুরা, সদর উপজেলার মোগলবাসা, উলিপুরের গুনাইগাছ এবং চিলমারী উপজেলার কাচকোল ও পুটিমারীর সাহেবের আলগা গ্রামের প্রায় ২ শতাধিক ঘর-বাড়ি নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। হুমকীতে রয়েছে আরো হাজার হাজার ঘর-বাড়ি, ফসলী জমিসহ বিভিন্ন স্থাপনা।

ভাঙনের শিকার এসব মানুষ ভিটে মাটি হারিয়ে খোলা আকাশের নীচে মানবেতর জীবন-যাপন করলেও মেলেনি কোন সরকারী বা বেসরকারী সহযোগীতা।
এসব এলাকায় ভাঙন রোধে এখনই কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহন করা না হলে নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যাবে আরো হাজারও পরিবারের শেষ সম্বলটুকুও।

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আরিফুল ইসলাম জানান, ভাঙন রোধে জরুরি ভিত্তিতে কয়েকটি স্থানে কাজ শুরু হয়েছে। বাকি কাজ বরাদ্দ পাওয়ার সাথে সাথে শুরু করা হবে।

প্রতি বছর জেলায় নদ-নদীর ভাঙনে ভিটে-মাটি হারিয়ে নি:স্ব হয়ে পড়ছে কয়েক হাজার পরিবার। আর কোনো পরিবার যেন গৃহহীন হয়ে নি:স্ব হতে না হয় সে জন্য ভাঙন প্রতিরোধে স্থায়ী ব্যবস্থা নেবে সরকার এমনটাই প্রত্যাশা নদী পাড়ের মানুষের।